Tuesday 9th of August 2022
Home / ফসল / কৃষিবান্ধব নীতি ও সহযোগিতার কারণে সীড সেক্টর এতটা বিস্তার লাভ করেছে – আনিস উদ দৌলা

কৃষিবান্ধব নীতি ও সহযোগিতার কারণে সীড সেক্টর এতটা বিস্তার লাভ করেছে – আনিস উদ দৌলা

Published at এপ্রিল ১১, ২০২২

সোমবার (১১ এপ্রিল) বাংলাদেশ সীড এসোসিয়েশন- এর প্রেসিডেন্ট ও এসিআই গ্রুপের চেয়ারম্যান এম আনিস উদ দৌলা সোমবার (১১ এপ্রিল)  কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক এম.পির অফিসকক্ষে সাক্ষাৎ করেন।

নিজস্ব প্রতিবেদক:  বর্তমান সরকারের কৃষিবান্ধব নীতি ও সহযোগিতার কারণে বাংলাদেশ সীড সেক্টরের ব্যাপক বিস্তার লাভ করেছে। যার ফলে কৃষকগণ তাদের চাহিদামতো বাড়ির কাছের দোকান থেকেই প্রয়োজনীয় সীড ও অন্যানা উপকরণ ক্রয় করতে পারছেন। এতে করে সার্বিকভাবে দেশে ফল- ফসলের উৎপাদন বেড়েছে, যা খাদ্য নিরাপত্তায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

বাংলাদেশ সীড এসোসিয়েশন- এর প্রেসিডেন্ট ও এসিআই গ্রুপের চেয়ারম্যান এম আনিস উদ দৌলা সোমবার (১১ এপ্রিল)  কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক এম.পির সাথে তাঁর অফিসকক্ষে সীড সেক্টরের উন্নয়ন বিষয়ে আলাপকালে এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ সীড (বীজ) সেক্টরের বিস্তার ও কৃষকদের চাহিদামতো মানসম্মত সীড সরবরাহের বিষয়ে এ সময় আলোচনা হয়। কৃষিমন্ত্রী এ সময় বেসরকারি খাতকে নতুন উদ্যোমে আরো মানসম্মত বীজ উৎপাদন, বাজারজাতকরণ, কৃষি যান্ত্রিকীকরণ, গবেষণা, কৃষিজ পণ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে বিনিয়োগের আহ্বান করেন।

আনিস উদ দৌলা বলেন, বর্তমান কৃষিমন্ত্রী কৃষি ও কৃষকবান্ধব হওয়াতে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিচক্ষণ সিদ্ধান্তে বৈশ্বিক মহামারিতেও বাংলাদেশ খাদ্য ঝুঁকিতে পড়েনি, কোন খাদ্য সংকট হয়নি। কারণ, লকডাউন চলাকালীন সময়েও কৃষকের কাছে নির্বিঘ্ন বীজ সরবরাহ রাখতে কৃষিমন্ত্রীর বিশেষ নজরে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ায় ফসল উৎপাদন বাঁধাগ্রস্ত হয়নি, ফসল সংগ্রহ যান্ত্রীকীকরণ করায় ফসলহানি হয়নি এবং ভোক্তাদের খাদ্যাভাব হয়নি। সরকারি এবং বেসরকারি যৌথ উদ্যোগের কারণে বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী, কৃষিমন্ত্রী ও কৃষিমন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানান।

এছাড়াও বৈঠকে আন্তর্জাতিক সীড সম্মেলনে কৃষিমন্ত্রীকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করেন এবং কৃষিমন্ত্রী এতে সম্মতি প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, আগামী জুন মাসে আন্তর্জাতিক সীড সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে যেখানে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সীড কোম্পানি অংশগ্রহণ করবে। সম্মেলনে বিভিন্ন বীজ প্রদর্শন থেকে শুরু করে সায়েন্টিফিক পেপার উপস্থাপন হবে।

This post has already been read 872 times!