Saturday 4th of February 2023
Home / ফসল / পেঁয়াজ বীজ উৎপাদনের উপর মাঠ দিবস

পেঁয়াজ বীজ উৎপাদনের উপর মাঠ দিবস

Published at এপ্রিল ২৬, ২০১৮

সেখ জিয়াউর রহমান (রংপুর): পেঁয়াজ বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান মসলা ফসল। দেশে প্রতি বছর প্রায় ১ লক্ষ ১৭ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজের চাষ হয় এবং উৎপাদন হয় প্রায় ৫ লক্ষ ৩০ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ। যা চাহিদার তুলনাই নিতান্তই কম। আর যেটুকুও পেঁয়াজ উৎপাদন হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় বীজের বড় একটা অংশ আসে বিদেশ থেকে। পেঁয়াজের উৎপাদন বৃদ্ধির বড় একটা অন্তরায় হলো বীজের উচ্চমূল্য এবং উৎপাদন মৌসুমে মান সম্পূর্ণ বীজের অভাব। মান সম্পূর্ণ পেঁয়াজ বীজ উৎপাদন কলাকৌশল নিয়ে প্রজনন বীজ উৎপাদন কর্মসূচী প্রকল্পের আওতায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বীজ প্রযুক্তি বিভাগের সহায়তায় সরেজমিন গবেষণা বিভাগ কৃষি গবেষণা কেন্দ্র আলমনগর রংপুরে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হলো বারি পেঁয়াজ-১ এর উপর মাঠ দিবস।

সরেজমিন গবেষণা বিভাগ কৃষি গবেষণা কেন্দ্র আলমনগর রংপুরের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আল-আমিন হোসেন তালুকদার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর বীজ প্রযুক্তি বিভাগের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আব্দুল খালেক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী অঞ্চল-১ এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. মাজহারুল আনোয়ার। আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষি গবেষণা কেন্দ্র আলমনগর রংপুর এর বিজ্ঞানীবৃন্দ এবং বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত শতাধিক কৃষক ও কৃষাণী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ মান সম্পূর্ণ পেঁয়াজের বীজ উৎপাদনের বিভিন্ন ধরণের যতেœর কথা তুলে ধরেন। পার্পল বøচ এবং স্টেমফাইলাম রোগ হলো পেঁয়াজের বীজ উৎপাদনের প্রধান অন্তরায়। এই জন্য বিজ্ঞানীগণ উৎপাদনের শুরু থেকে বীজ দানা বাধা পর্যন্ত ১০-১২ দিন অন্তর ছত্রাকনাশক স্প্রে করার তাগিদ দেন।

বক্তারা আরও উল্লেখ করেন যে, বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের শীতকাল দক্ষিনাঞ্চলের চেয়ে আগে শুরু হয় এবং শেষও হয় পরে। তুলনামূলক ভাবে দীর্ঘ শীতকাল এবং সু-নিষ্কাশিত দো-আঁশ মাটির কারণে উত্তরাঞ্চেলের মান সম্পূর্ণ পেঁয়াজের বীজ উৎপাদনের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত কৃষক-কৃষাণী বৃন্দ হেক্টর প্রতি ৬০০-৬৫০ কেজি বীজ উৎপাদন ক্ষমতা সম্পূর্ণ বারি পেঁয়াজ-১ এর বীজ উৎপাদন কার্যক্রম দেখে উৎসাহিত হন এবং নিজেরা বীজ উৎপাদনের আগ্রহ প্রকাশ করেন।

This post has already been read 1609 times!