Wednesday 18th of May 2022
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা

চালের বাজার অস্থিতিশীল করলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা

Published at জানুয়ারি ২৯, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: কারসাজির মাধ্যমে কেউ যাতে চালের মূল্যবৃদ্ধি করতে না পারে তার জন্য পদক্ষেপ নিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। এজন্য চালের মূল্য নিয়ন্ত্রণে বিশেষ মনিটরিং টিম গঠন করেছে সরকার। চালের বাজার অস্থিতিশীল করতে কেউ যদি কারসাজির চেষ্টা করে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশনা দিয়েছেন খাদ্য মন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। বুধবার (২৯ জানুয়ারি) সচিবালয়ে মন্ত্রী খাদ্য মন্ত্রণালয়ের  উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের এ নির্দেশনা দেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ধানের দামের সঙ্গে চালের দামের সামঞ্জস্য রাখতে হবে। কোন ক্রমেই যেন মিল মালিক এবং ব্যবসায়ীরা বাড়তি সুবিধা না নিতে পারে।  একদিকে কৃষক যেন ন্যায্যমূল্য পান, অন্যদিকে ভোক্তারাও যাতে সহনীয় দামে চাল কিনে খেতে পারেন সেটা নিশ্চিত করতে হবে। মন্ত্রী

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. শামীম হাসান এবং খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সারোয়ার মাহমুদ এর স্বাক্ষরিত পৃথক দুটি অফিস আদেশে বাজার মনিটরিং টিম গঠন করার বিষয়টি জানানো হয়। খাদ্যশস্যের বাজার মূল্যের উর্ধ্বগতির প্রবণতা রোধ, নিন্ম আয়ের জনগোষ্ঠীকে সহায়তা এবং বাজারদর স্থিতিশীল রাখা, কৃষকদের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করার স্বার্থে খাদ্য মন্ত্রণালয় এবং খাদ্য অধিদপ্তরের অধীনে মোট ৭টি বাজার মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে।

চালের বাজারদরে ঊর্ধ্বগতি প্রবণতা রোধে ঢাকা মহানগরের বড় বড় পাইকারি বাজার সরেজমিনে তদারকির জন্য খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে ৪টি এবং খাদ্য অধিদপ্তরের অধীনে ৩ টি মনিটরিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিগুলোকে বাজারদর সংগ্রহ করে খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদপ্তরে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কমিটির কার্যপরিধির মধ্যে রয়েছে, ঢাকা মহানগরের বড় বড় পাইকারি বাজার সরেজমিনে তদারকি করে বাজারদর সংগ্রহপূর্বক প্রতিবেদন দাখিল, বাজার পরিদর্শনে দিনের বাজারদর ও আগের দুই দিনের বাজারদর সংগ্রহ করে প্রতিবেদন প্রস্তুত এবং বাজারে চাল ও আটার বিক্রয়মূল্য ও ক্রয়মূল্যের তথ্য সংগ্রহ। বাজার মনিটরিংয়ের দায়িত্বে থাকা কমিটিগুলো প্রতিদিন বাজার মনিটরিং করবে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কমিটি-১ এর নেতৃত্বে রয়েছেন যুগ্ম সচিব মোছা. কামার জাহান, কমিটি-২ এর নেতৃত্বে আছেন উপ সচিব রায়না আহমদ, কমিটি-৩ এর নেতৃত্বে আছেন উপ সচিব মো. শামীম হাসান এবং খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সহকারি সচিব মোছাঃ তাহমিনা খানমের নেতৃত্বে কমিটি-৪ গঠন করা হয়েছে। অন্যদিকে খাদ্য অধিদপ্তরের আওতাধীন কমিটি-১ এর নেতৃত্বে আছেন খাদ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক রেজা মোহাম্মদ মহসিন,  কমিটি-২ এর নেতৃত্বে আছেন সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর নকীব সাদ সাইফুল ইসলাম এবং কমিটি-৩ এর নেতৃত্বে আছে অতিরিক্ত পরিচালক মো. আমজাদ হোসেন। প্রত্যেক কমিটিতে দুই জন করে সদস্য রয়েছেন। প্রতিটি কমিটিকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত নিয়মিত বাজার পরিবীক্ষণ করে বস্তুনিষ্ঠ প্রতিবেদন খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদপ্তরে দাখিলের জন্য বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ১ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে চালের মূল্য সহনীয় রাখতে একটি কন্ট্রোল রুম এবং বিশেষ মনিটরিং টিম গঠন করেছিল সরকার। যা বর্তমানেও খোলা রয়েছে। বাজার পরিস্থিতি নিয়ে যে কেউ উল্লিখিত কন্ট্রোলরুমে অভিযোগ জানাতে পারবেন। অভিযোগ কেন্দ্রের ফোন নং  ০২ ৯৫৪০০২৭ এবং ০১৬৪২৯৬৭৭২৭।

This post has already been read 1230 times!