Friday 27th of May 2022
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / আইপিএম প্রকল্পের আওতায় কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আইপিএম প্রকল্পের আওতায় কৃষক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

Published at সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৯

মো. এমদাদুল হক (কুষ্টিয়া): বর্ধিত জনগোষ্টিকে খাওয়াতে হলে বেশি বেশি কৃষির উৎপাদন ছাড়া উপায় নাই। আর কৃষির উৎপাদন বাড়াতে দরকার নতুন নতুন আধুনিক প্রযুক্তি এবং মাঠ পর্যায়ে তার যথাযথ ব্যবহার। এ বিষয়টিকে লক্ষ্য রেখেই মঙ্গলবার (৩ সেপ্টম্বর) কুষ্টিয়া জেলার মীরপুর উপজেলায় উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের আয়োজনে এবং সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় (আইপিএম) এক মাঠ দিবস উপজেলার পাহাড়পুর আইপিএম কৃষক মাঠ স্কুলে  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মাঠ দিবসে কৃষক প্রশিক্ষণের জ্ঞান ও তাদের বিভিন্ন প্রযুক্তির জীবন্ত নমুনা উপস্থাপন করেন। মীরপুর পাহাড়পুর গ্রামের ৫’শতাধিক কৃষক কিষাণির সমন্বয়ে কৃষক মাঠ স্কুলে দিবসটি উদযাপিত হয়।

আয়োজক সূত্রে জানা যায়, কৃষক-কৃষাণির বাড়ির আশে পাশে ফল সবজি কৃষির সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে কৃষক পরিবারকে এই প্রশিক্ষন প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ ও সচেতন করে গড়ে তোলাই ছিল এই মাঠ দিবসের মূল লক্ষ্য।

কুষ্টিয়া খামারবাড়ি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক কৃষিবিদ শ্যামল কুমার বিশ্বাস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) ওবাইদুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, ঢাকা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ির পরিবেশ বান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকল্পের  উপপ্রকল্প পরিচালক মো. সালাহ উদ্দীন সরদার, মিরপুর উপজেলার  উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম জামাল আহমেদ, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রমেশ চন্দ্র ঘোষ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ সাবিহা সুলতানা এবং মীরপুর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের কমান্ডার মো. আফতাব উদ্দিন।

প্রধান অতিথি কুষ্টিয়া জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ওবাইদুর রহমান বলেন, সরকার প্রতিনিয়ত কৃষির উন্নয়নের জন্য কৃষিতে নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহন করছে। কৃষকের জীবন মান উন্নয়নের জন্য আইপিএম প্রকল্পের আওতায় প্রশিক্ষণ সহ নানাবিধ কৃষি উপকরণ কৃষকদের মধ্যে প্রণোদনা হিসাবে প্রদান করা হচ্ছে। কৃষির আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে উৎপাদন বৃদ্ধি করে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে উদাত্ত আহ্বান জানান তিনি।

মাঠ দিবসে উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রমেশ চন্দ্র ঘোষ কৃষকের আর্থসামাজিক অগ্রগতির লক্ষে কৃষিতে লাগসই এবং টেকসই প্রযুক্তি প্রয়োগ করে নিজেদেরকে লাভবানসহ রাষ্ট্রীয় উন্নয়নে ভূমিকা রাখার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন।

মাঠ দিবস চত্বরে আগত সকল দর্শনার্থীদের প্রদর্শনের জন্য প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত কৃষক কিষানীরা সমন্বিত ধান চাষ, মৎস্য চাষসহ কৃষি পরিবেশ বান্ধব প্রযুক্তি সম্পর্কীয় ২৫টি বুথের মাধ্যমে নানা প্রযুক্তি উপস্থাপন করেন। পরে বুথ উপস্থাপনের জন্য ২৫ জনকে ২ হাজার ৮শত টাকা  ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

This post has already been read 1527 times!