Monday 16th of May 2022
Home / অন্যান্য / রায়গঞ্জে ৩ দিনব্যাপী ফলদ ও বনজ বৃক্ষ মেলা শুরু

রায়গঞ্জে ৩ দিনব্যাপী ফলদ ও বনজ বৃক্ষ মেলা শুরু

Published at জুলাই ২৫, ২০১৯

আশিষ তরফদার (পাবনা): ‘পরিকল্পিত ফল চাষ যোগাবে পুষ্টি সম্মত খাবার, শ্লোগানকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলায় ৩দিনব্যাপী (২৪-২৬ জুলাই) ফলদ ও বনজ বৃক্ষ মেলা শুরু হয়েছে। বুধবার (২৪ জুলাই) বিকালে রায়গঞ্জ উপজেলা চত্বর থেকে ফলদ ও বনজ বৃক্ষ মেলা উপলক্ষে এক বর্নাঢ্য র‌্যালি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে ফিতা কেটে মেলার শুভ উদ্বোধন করেন (সিরাজগঞ্জ-৬৪) রায়গঞ্জ, তারাশ-৩ এর জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ।

এরপর বৃক্ষ মেলা নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শামীমুর রহমান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রায়গঞ্জ, তারাশ-৩ এর জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট ইমন তালুকদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বাচ্চু উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. নাজমুল হক মন্ডল। আলোচনার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন, উপজেলার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো.নাজমুল হক মন্ডল।

প্রধান অতিথি ডা. মো. আব্দুল আজিজ এম.পি বলেন, বর্তমানে পরিবর্তিত জলবায়ুতে টিকে থাকার জন্য বৃক্ষ রোপণের বিকল্প নেই। তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমান সময়ে দেখা যাচ্ছে মানুষের মধ্যে গাছ লাগানোর প্রবণতা। বর্তমান সময়ে প্রতিটি হাট বাজার এমনকি শহরে চারা বিক্রয় হচ্ছে। পরিকল্পিত ভাবে প্রতিজন ৩টি করে ফলের চারা এবং পাশাপাশি অন্যান্য চারা রোপণ করবো। আমাদের বাড়ির ছাদে, বারান্দায়, বেলকুনিতে সুন্দর ভাবে বাগান গড়ে তুলবো। এর ফলে একদিকে যেমন বাসা বাড়ির সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি পাবে অপরদিকে অবসর সময়ে ছাদ বাগানে কাজ করে আনন্দ পাওয়ার পাশাপাশি বিষমুক্ত শাকসবজি, ফল উৎপাদন করে খেতে পারবো। এ মেলার মাধ্যমে নতুন নতুন ফুল, ফলের চারা পরিচিতি ঘটবে। এতে করে চারা রোপণের আগ্রহ জনগনের মধ্যে বৃদ্ধি পাবে। আমি আশা করবো নার্সারি মালিকরা সব সময় ভালো মানের চারা সরবরাহের করবেন।

সভায় অন্যান্য বক্তারা বলেন, প্রতি বছর একটি নির্দিষ্ট হারে আবাদি জমি কমে যাচ্ছে। এর বিপরীতে বাড়ছে জনসংখ্যা। বাড়তি জনগনের খাবারে জন্য আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে কৃষির সকল উৎপাদন বাড়াতে হবে। উক্ত অনুষ্ঠানে উপজেলার সকল উপসহকারি কৃষি কর্মকতাসহ সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, অত্র উপজেলার উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তা রেজাউল ইসলাম।

 

This post has already been read 1621 times!