Saturday 4th of February 2023
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / মরক্কোর বিশ্বখ্যাত এমসিপি PHOSFEED বাজারজাত করবে ইব্রাতাস ট্রেডিং

মরক্কোর বিশ্বখ্যাত এমসিপি PHOSFEED বাজারজাত করবে ইব্রাতাস ট্রেডিং

Published at মার্চ ১৪, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের ফিডমিলগুলোতে প্রয়োজনীয় কাঁচামাল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ইব্রাতাস ট্রেডিং কোম্পানি অন্যতম। নিত্য নতুন পণ্য সংযোজন ও বাজারজাতকরণে ইতোমধ্যে কোম্পানিটি দেশের বাজারে একটি শক্তিশালী অবস্থান তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার (১২ মার্চ) ঢাকার রেডিসান ওয়াটার গার্ডেন ব্লুতে  PHOSFEED নামে নতুন একটি পণ্যের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেছে কোম্পানিটি। PHOSFEED মূলত মরক্কো থেকে আমদানিকৃত মনো ক্যালসিয়াম ফসফেট সংক্ষেপে যেটিকে এমসিপি (MCP) বলা হয়।

অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ এম.পি বলেন, আমাদের কৃষি প্রধান দেশে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আমরা খাদ্যের নিরাপত্তার বিষয়ে যেমন সজাগ তেমনি নিরাপদ খাদ্যের ব্যাপারেও সজাগ। তাই যেসব কাঁচামাল বিদেশ থেকে আমদানি ও বাজারজাত করা হবে সেগুলো যেন নিরাপদ ও অর্গানিক হয় সেটি খেয়াল রাখতে হবে।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার নিরাপদ খাদ্যের ব্যাপারে অনেক বেশি সজাগ ও সচেতন। মানুষের ক্ষতি হয় এমন কোন কিছুর অনুমোদন আমরা দিবোনা। প্রাণিসম্পদের এ খাতটিকে ভেজালমুক্ত নিরাপদ রাখার আহ্বান জানান এ সময় তিনি।

PHOSFEED সম্পর্কে ইব্রাতাস ট্রেডিং কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরুন ব্যবসায়ী মোশারফ হোসেন বলেন, দেশের বাজারে MCP-এর চাহিদা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বড় বড় ফিডমিলারগুলো DCP-এর বদলে MCP -এর ব্যবহারের দিকে বেশি আগ্রহ হচ্ছেন।  এক্ষেত্রে গুণগত মানসম্পন্ন ও সরবরাহ নিশ্চিত করা একটি বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইব্রাতাস ট্রেডিং কোম্পানির মূল লক্ষ্য থাকে ভালো মানের পণ্য বাজারজাত করা। প্রায় চার দশক ধরে এই মূল মন্ত্রের ওপরই আমরা ব্যবসা করে আসছি। বিশ্ববাজার যাচাই বাঁছাই করে PHOSFEED আমাদের কাছে আদর্শ মনে হয়েছে। তাই পণ্যটি বাজারজাতকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

মোশারফ হোসেন বলেন, দেশের বড় বড় ফিডমিলারগণ ইতোমধ্যে পণ্যটির ব্যাপারে ব্যাপক আগ্রহ দেখিয়েছেন। কারণ, DCP -এর চেয়ে MCP কম পরিমাণ ব্যবহার করতে হয়। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী ফসফরাসের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম এটি। আমরা বিশ্বাস করি PHOSFEED -এর physical profilem, Chemical Composition, value analysis method ইত্যাদি বিশ্লেষণ করে ব্যবহারকারীগণ এটিকে শ্রেষ্ঠ পণ্য হিসেবে গ্রহণ করবেন।

এছাড়াও দেশের মৎস্য সম্পদকে বিদেশের বাজারে পরিচয় করিয়ে দিতে খুব শীঘ্রই ইব্রাতাস ট্রেডিং কোম্পানী পাঙ্গাস মাছ রপ্তানি করবে বলে জানান মোশারফ হোসেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বাফিটা’র সভাপতি সুধীর চৌধুরী বলেন, আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে ভালো কাঁচামাল সরবরাহ ও বাজারজাতকরণের বিষয়টিতে আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ। কারণ, কাঁচামাল নিরাপদ না হলে ফিড নিরাপদ হবেনা, আর ফিড নিরাপদ না হলে মাছ, মাংস, দুধ ও ডিম নিরাপদ থাকবেনা। আশা করি, ইব্রাতাস ট্রেডিং কাঁচামালের গুণগত মান অক্ষুন্ন রাখতে সক্ষম হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি Mr. Joao Tabajara de Oliveira Junior, Ambassador of Brazil in Dhaka, Mr. Julio Cesar Silva, Charge d’affaires of Brazil Embassy Dhaka, Morocco এর MrMachhour HamidDeputy Head Of Mission, Dhaka, Mr. Saad Lahjouji Idrissi, OCP Group, Morocco,  পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম, আহ্কাব সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. কামরুজ্জামান ছাড়াও দেশ বিদেশের পোলট্রি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিশেষজ্ঞ, পেশাজীবী, ফিডমিল মালিক ও সরকারি-বেসরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ।

This post has already been read 1776 times!