Wednesday 22nd of May 2024
Home / অন্যান্য / মহেশখালীতে ঘুর্নীঝড় মোখায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে আইএসডিই এর নতুন গৃহ হস্তান্তর

মহেশখালীতে ঘুর্নীঝড় মোখায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে আইএসডিই এর নতুন গৃহ হস্তান্তর

Published at মে ১৬, ২০২৪

চট্টগ্রাম সংবাদদাতা: কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীকি মার্মা বলেছেন মহেশখালী উপজেলা উপকূলীয় দ্বীপ উপজেলা হবার কারণে দুর্গম এবং সবসময় দুর্যোগ ঝুঁকিতে থাকলেও সরকারি-বেসরকারী সবধরনের সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। যার কারনে এই দ্বীপ উপজেলায় দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ জনগন দুর্যোগে আতংকিত থাকে। ঘূর্নীঝড়, বন্যাসহ সাইক্লোন মোখা ও হামোরের মতো নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগে সবসময় ঝুঁকিতে থাকেন। তাই বাইরে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আইএসডিই ও ব্র্যাক সাইক্লোন মোখা ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠির পুর্নবাসনে এগিয়ে আসার জন্য তাদেরকে ধন্যবাদ জানান। তবে সহায়তার পরিমান এত কম যা পুরো উপজেলার বিশাল ক্ষতিগ্রস্থ জনগনের পাশে দাড়াঁনো সম্ভব হয়নি। আশা করেন পরবর্তীতে সমগ্র উপজেলার ক্ষতিগ্রস্থ জনগনের মাঝে সহায়তা পৌঁছানো এবং অন্যান্য বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থাগুলোও এভাবে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের কল্যানে এগিয়ে আসবেন। বর্তমান সরকারও গৃহহীন মানুষকে গৃহ দিয়ে স্থায়ী ঠিকানা তৈরী করার সরকারের বর্তমান পরিকল্পনার সাথে আইএসডিই এর উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। ঘুর্নীঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষকে পুর্নবাসন করে নতুন গৃহ, গৃহ সংস্কার, পায়খানা ও নলকুুপের প্ল্যাটফরম তৈরী করে দেবার মতো মানবিক কাজগুলোর জন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এধরনের প্রকল্প আরও বাস্তবায়নের অনুরোধ জানান।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) মহেশখালী উপজেলার কালারমার ছড়া ্ইউনিয়নের ফকিরজুন পাড়ায় রুবি আক্তারের কাছে নতুন গৃহ হস্তান্তর উপলক্ষে অনানুষ্ঠানিক অনুষ্ঠানে উপরোক্ত মন্তব্য করেন। বেসরকারী সমাজ উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান আইএসডিই বাংলাদেশের উদ্যোগে ব্র্যাক ও অস্ট্রেলিয়ান এইড এর সহযোগিতায় ঘুর্নীঝড় মোখায় ক্ষতিগ্রস্থ গৃহহীন জনগোষ্ঠির মাঝে নতুন গৃহ হস্তান্তর এর অংশ হিসাবে উক্ত গৃহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে কালারমারছড়া ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান-০২ মোহাম্মদ আলী, ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক, ব্র্যাকের এইচসিএমপি’র জেলা সমন্বয়কারী অজিত নন্দি, ব্র্যাক এইচসিএমপি’র ডেপুটি ম্যানেজার প্রশান্ত নাথ, ব্র্যাক এইচসিএমপি’র স্পেশালিস্ট কাজী আসিফ মাহমুদ, আইএসডিই বাংলাদেশের কর্মসূচি সমন্বয়কারী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, প্রজেক্ট অফিসার টেকনিক্যাল) ইঞ্জিনিয়ার মারুফুল ইসলাম, আইএসডিই মহেশখালী উপজেলা ব্যবস্থাপক মনজুর আলম প্রমুখ এ উপলক্ষে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, উপকূলীয়ীয় ও দুর্গম যোগাযোগ ব্যবস্থার কারনে মহেশখালী উপজেলা যে কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য খুবই ঝুঁিকপুর্ণ হলেও কঠিন যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে এখানে ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠির মাঝে সহায়তা পৌঁছানো কঠিন। সেখানে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আইএসডিই দীর্ঘদিন ধরেই এই দুর্গম অঞ্চলে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠির মাঝে এধরনের মানবিক সহায়তা পৌঁছানো হয়। প্রকল্পের মাধ্যমে এ ধরনের মানবতাবাদী কর্মকান্ড পরিচালনা করে সীমিত বাজেটের মধ্যে একটি পরিপূর্ন ঘর উপহার দেয়া হয়েছে। আইএসডিই স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে এবং প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থরাই এই সহায়তা পেয়েছে, সেকারনে তাদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।  তবে মহেশখালী উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠির সংখ্যা অনেক বেশী, তাই এখানে সহায়তার পরিমান বাড়ানো দরকার বলে মতপ্রকাশ করেন।

উল্লেখ্য বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আইএসডিই ব্র্যাক ও অস্ট্রেলিয়ান এইড এর সহযোগিতায় মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নে ঘুর্নীঝড় মোখায় ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠির মাঝে ১১টি নতুন ঘর, ১১টি ঘর মেরামত, ১৪টি নলকুপের প্লাটফরম তৈরী, ১৮টি নতুন স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা স্থাপন করা হয়।

This post has already been read 360 times!