Wednesday 22nd of May 2024
Home / আঞ্চলিক কৃষি / রাজশাহীতে মসলা ফসলের আঞ্চলিক কর্মশালা ২০২৪

রাজশাহীতে মসলা ফসলের আঞ্চলিক কর্মশালা ২০২৪

Published at মে ১৬, ২০২৪

রাজশাহী সংবাদদাতা: ২০২৩-২৪ অর্থবছরে মসলার উন্নত জাত ও প্রযুক্তি সম্প্রসারণ (১ম সংশোধিত) প্রকল্প এর আওতায় গত বুধবার (১৫ মে) পোস্টাল একাডেমী, রাজশাহীর সম্মেলন কক্ষে আঞ্চলিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বগুড়া অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক সরকার শফি উদ্দীন আহমদ এর সভাপতিত্বে মসলার উন্নত জাত ও প্রযুক্তি সম্প্রসারণ (১ম সংশোধিত) প্রকল্প, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খামারবাড়ি, ঢাকা-১২১৫ এর আয়োজনে দিনব্যাপী এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত কর্মশালার শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন মসলার উন্নত জাত ও প্রযুক্তি সম্প্রসারণ (১ম সংশোধিত) প্রকল্প, ডিএই, খামারবাড়ি, ঢাকা এর প্রকল্প পরিচালক রাসেল আহমেদ।

অতিথিদ্বয় বলেন, আমাদের দেশে খাদ্যকে সুস্বাদু করা ছাড়াও খাদ্য সংরক্ষণ ও এর গুণাগুণ রক্ষার্থে ব্যাপকভাবে মসলা ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও  মসলার অনেক ওষুধিগুন রয়েছে। মসলা ঔষধ শিল্পেও ব্যবহার করা হয়। মসলা কৃষি পণ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। প্রধান শস্যগুলোর পাশাপাশি এর চাষ বাড়াতে হবে। কারণ জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় মসলার জমি চলে এসেছে খাদ্যশস্য চাষের আওতায়। এ কারণে মসলার চাহিদা মেটাতে বিদেশ থেকে মসলা আমদানি করে এ ঘাটতি পূরণ করা হয়।

অতিথিদ্বয় আরো বলেন, দেশে প্রয়োজনীয় মসলার উৎপাদন ও সরবরাহ বৃদ্ধি করতে মসলা ফসলের ওপর গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা, উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির জন্য মানসম্পন্ন বীজ বপন, রোপন, বীজ ও চারা, কলম ইত্যাদি উৎপাদন প্রযুক্তি ও পদ্ধতির উন্নয়ন, করতে হবে। আমরা যদি এ জাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি করতে পারি তাহলে  কর্মসংস্থান ও আয় বাড়িয়ে জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন হবে ও চাহিদা মেটানো সম্ভব হবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, দিনাজপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক মো: হামিদুর রহমান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, যশোর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক দীপক কুমার রায়, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক মো: ওবায়দুর রহমান ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, রাজশাহী অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) ড. মোঃ মোতালেব হোসেন প্রমুখ।

কর্মশালায় কৃষি মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, কৃষক এবং অন্যান্য ব্যক্তিবর্গসহ প্রায় ১৪০ জন উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 274 times!