Monday 20th of May 2024
Home / পোলট্রি / বিশ্ব ডিম দিবস উপল‌ক্ষে বাকৃ‌বি‌ ভেটেরিনারি অনুষদের সে‌মিনার, সভাসহ বি‌ভিন্ন কর্মসূ‌চি পালন

বিশ্ব ডিম দিবস উপল‌ক্ষে বাকৃ‌বি‌ ভেটেরিনারি অনুষদের সে‌মিনার, সভাসহ বি‌ভিন্ন কর্মসূ‌চি পালন

Published at অক্টোবর ১৩, ২০২৩

দীন মোহাম্মদ দীনু (বাকৃ‌বি) : বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ভেটেরিনারি অনুষদ নানা  কর্মসূচির মধ্যদিয়ে শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) বিশ্ব ডিম দিবস-২০২৩ পালন করেছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে ভেটেরিনারি অনুষদ কর্তৃক দুপুরে র‌্যালি, সার্বজনীন ডিম বিতরণ এবং সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভেটেরিনারি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. আব্দুল আউয়ালের সভাপতিত্বে সৈয়দ নজরুল ইসলাম কনফারেন্স হলে সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভাইস চ্যান্সেলর প্র্রফেসর ড. এমদাদুল হক চৌধুরী।

সেমিনারে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাস্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিলের সভাপতি জনাব শামসুল আরেফিন খালেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিন পরিষদের আহবায়ক প্রফেসর ড. মো. আবুল মনসুর, কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. আবু হাদী নূর আলী খান, বাউরেসের পরিচালক প্রফেসর ড. মাহফুজা বেগম, ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন-বাংলাদেশ ব্রাঞ্চের সাধারণ সম্পাদক ড. বিপ্লব কুমার প্রামাণিক।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর প্র্রফেসর ড. এমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, বিশ্ব ডিম দিবস পালনের মূল উদ্দেশ্য ডিম সম্পর্কিত কিছু ভ্রান্ত ধারণাকে ছাপিয়ে জনগণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। শরীরের চর্বি কমাতে খাদ্যাভাসে কার্বোহাইড্রেট কমিয়ে প্রোটিনসমৃদ্ধ করতে হবে। ডিম পৃথিবীর সবচেয়ে সস্তা প্রাণীজ প্রোটিন। একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষকে প্রতিদিন কমপক্ষে একটি ডিম এবং বাচ্চাদের দুটি ডিম খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলে জাতীয় স্বাস্থ্য সূচকের উন্নয়ন ঘটাতে হবে। এছাড়াও তিনি বিদেশ থেকে ডিম আমদানি না করে দেশীয় খামারিদের প্রণোদনা দিয়ে ডিম উৎপাদনের দীর্ঘমেয়াদি ব্যবস্থাপনার তাগীদ পোষণ করেন।

সেমিনারে দিবসটির প্রতিপাদ্য বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মেডিসিন বিভাগের প্রফেসর ড. মো. তৌহিদুল ইসলাম। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো. বাহানুর রহমান এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন আয়োজক কমিটির সদস্য-সচিব প্রফেসর ড. আজিমুন নাহার। অনুষ্ঠানে ভেটেরিনারি অনুষদের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দসহ আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 1659 times!