মৎস্যশিল্পকে বাঁচাতে সংগঠনের বিকল্প নেই -ফোয়াব সভাপতি

খুলনা সংবাদদাতা: খুলনা পাইকগাছার মৎস্য সংক্রান্ত সংগঠনের প্রতিনিধিদের নিয়ে মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে সংগঠনের প্রয়োজনীয়তা শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে পাইকগাছা উপজেলা লোনাপানি কেন্দ্রে উক্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ফিসারি প্রোডাক্টস বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল (এফপিবিপিসি) ও ফোয়াবের যৌথ অর্থায়নে সহযোগিতায় ছিল জেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়। বাস্তবায়নে ছিল ফিস ফার্ম ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ফোয়াব)।

প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পুলিশ সুপারের পক্ষে অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মো: সাইফুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পাইকগাছা ঘের মালিক সমিতির সভাপতি মোস্তফা কামাল জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া রিপন, ওসি তদন্ত মো: রফিকুল ইসলাম, উপজেলা সমবায় কর্তকর্তা মো: বেনজির আহমেদ। প্রধান আলোচক ছিলেন সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা টিপু সুলতান। মূখ্য আলোচক ছিলেন পাইকগাছা লোনাপানি কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো: শেখ লতিফুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন ফোয়াবের সভাপতি মৎস্য উন্নয়ন ও সমবায় ব্যক্তিত্ব মোল্লা সামছুর রহমান (শাহীন)। পরিচালনা করেন ফোয়াবের যুগ্ম সম্পাদক শেখ সাকিল হোসেন।

সভাপতির বক্তৃতায় শাহীন বলেন, রাজনৈতিক আবরণে প্রান্তিক খামারিদেরকে ও শতভাগ রপ্তানিমুখি মৎস্য শিল্পকে ব্যক্তিস্বার্থে ধ্বংস হতে দেয়া যাবে না। তাই এদেরকে প্রতিহত করতে সংগঠনের বিকল্প নেই। স্বাস্থ্য সম্মত মৎস্য উৎপন্ন করে রপ্তানি বৃদ্ধি করতে আমরা প্রত্যেকেই অঙ্গীকারাবদ্ধ। ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি আরো বলেন, ৪র্থ শিল্প বিপ্লবে মৎস্য সেক্টরে আমূল পরিবর্তন আসবে। এই বিপ্লবকে কাজে লাগিয়ে আমরা এই সেক্টরকে আরো বৃদ্ধি করব ইনশাআল্লাহ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন মোহাম্মদ আলী। পবিত্র গীতা পাঠ করেন খালিয়ারচক বাগদা ও গলদা চিংড়ি ক্লাস্টারের সভাপতি শীব শংকর। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন কপিলমুনির তালতলা বাগদা ও গলদা চিংড়ি ক্লাস্টারের সভাপতি প্রীতিষ কুমার মন্ডল, ডিপো মালিক সমিতির সম্পাদক মো: সাইফুল ইসলাম, মৎস্যজীবীদের পক্ষে রবীন বিশ্বাস ও কাঁকড়া ব্যবসায়িদের পক্ষে দেবব্রত সরকার দেবু। উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সহকারী নির্বাহী কর্মকর্তা পলাশ কুমার ঘোষ, ফোয়াবের সহ-সভাপতি, লস্কর মনিরুজ্জামান ফোয়াবের অর্থ সম্পাদক সাফায়েত হোসেন শাওন, জেলা আহ্বায়ক অধ্যক্ষ অনরুদ্ধ বাহাদুর, জেলা চিংড়ি পোনা ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ, জেলা মৎস্যজীবী লীগের মহিলা নেত্রী বুলু রানী মন্ডল, মোশাররফ মোল্লা, শেখ শহিদ হোসেন বাবুল, মৎস্যজীবী লীগনেতা আকবর, খান শফিকুল ইসলাম জিএম ইকরামুল ইসলাম, জিএম মিজানুর রহমান, শেখ শহীদ হোসেন বাবলু, মো: আজু মোল্লা, মো: শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। মৎস্য সংক্রান্ত ২৬টি সংগঠনের প্রতিনিধিরা কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

This post has already been read 1979 times!

Check Also

আগামীকাল থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত সামুদ্রিক জলসীমায় মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাছের সুষ্ঠু প্রজনন, উৎপাদন বৃদ্ধি, সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণ এবং টেকসই মৎস্য আহরণের …