Saturday 24th of February 2024
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / দেশের রপ্তানি আয়ের ২০ ভাগ আসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে

দেশের রপ্তানি আয়ের ২০ ভাগ আসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে

Published at অক্টোবর ২৭, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এমপি বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের বড় বাণিজ্যিক এবং উন্নয়ন সহযোগি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগের অনেক সুযোগ রয়েছে, এ সুযোগকে কাজ লাগাতে হবে।  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের বৈদেশিক বাণিজ্য দিনদিন বাড়ছে। বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি পণ্য তৈরী পোশাক। চলমান বিশ্ব অস্থির পরিস্থিতিতেও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের তৈরী পোশাক রপ্তানি একক দেশ হিসেবে সর্ববৃহত বাজার। বিশ্ব বাজারে তৈরি পোশাক রপ্তাতি কারক দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান এখন দ্বিতীয়। তৈরী পোশাক ছাড়াও বাংলাদেশ হিমায়িত খাদ্যপণ্য, চামড়াজাত পণ্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সুনামের সাথে রপ্তানি হচ্ছে। এছাড়া, আইটি খাতের আউটসোর্সিং এর বড় বাজার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বিগত ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে বাংলাদেশ প্রায় ১০.৪১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যেও পণ্য রপ্তানি করেছে। বাংলাদেশের মোট রপ্তানি প্রায় ২০ ভাগ আসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে।

বাণিজ্যমন্ত্রী আজ (২৭ অক্টোবর) ঢাকায় প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্স ইন বাংলাদেশ (এ্যামচ্যাম) আয়োজিত “২৮তম ইউএস ট্রেড শো-২০২২” এর উদ্বেধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

আমেরিকান চেম্বার অফ কমার্স ইন বাংলাদেশ (এ্যামচ্যাম) এর প্রেসিডেন্ট  সৈয়দ এরশাদ আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন ঢাকায় সফররত এ্যাসিসটেন্ট সেক্রেটারি অফ কমার্স ফর গ্লোবাল মার্কেট এন্ড ডাইরেকটর জেনারেল অফ দি ইউএস এন্ড ফরেন কমার্সিয়াল সার্ভিস অরুণ ভেনকাটারাম্যান। অন্যান্যেও মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অনেক পণ্য বাংলাদেশে আমদানি হয়। বর্তমানে এ আমদানির পরিমান প্রায় ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আমদানি পণ্যের মধ্যে রয়েছে এ্যারোপ্লেন,কটন, গম, সোয়াবিন তেল এবং আইসিটি পণ্য। বাংলাদেশে এনার্জি, অবকাঠামো নির্মাণ, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, এগ্রো বিজনেস, আইসিটি, শিক্ষা, পর্যটনখাতে বিনিয়োগের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। ফরেন ডাইরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট এর ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সরকার বেশকিছু সুযোগ সুবিধা ঘোষণা করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগকারীগণ বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে অধিক লাভবান হবেন।

এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এবং ঢাকায় সফররত এ্যাসিসটেন্ট সেক্রেটারি অফ কমার্স ফর গ্লোবাল মার্কেট এন্ড ডাইরেকটর জেনারেল অফ দি ইউএস এন্ড ফরেন কমার্সিয়াল সার্ভিস অরুণ ভেনকাটারাম্যান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কমার্সিয়াল সার্ভিস এর ঢাকা অফিস উদ্বোধন করেন।

This post has already been read 1153 times!