Thursday 1st of December 2022
Home / আঞ্চলিক কৃষি / প্রণোদনা সহায়তা কাজে লাগিয়ে উৎপাদন বাড়াতে হবে- খাদ্যমন্ত্রী

প্রণোদনা সহায়তা কাজে লাগিয়ে উৎপাদন বাড়াতে হবে- খাদ্যমন্ত্রী

Published at এপ্রিল ২৫, ২০২২

মো. দেলোয়ার হোসেন (রাজশাহী): বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার কৃষি প্রণোদনা প্রদান করে দেশে অধিক ফসল উৎপাদন করার মধ্য দিয়ে দেশকে খাদ্যে সয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন ও বিদেশে খাদ্য রপ্তানীর সক্ষমতা অর্জন করার আহবান জানান খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি ।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা বৃদ্ধির ফলে খাদ্য চাহিদা দিন দিন বেড়ে চলেছে। দেশের এই খাদ্য চাহিদা মিটাতে ধান উৎপাদন বৃদ্ধি কল্পে বোরো ধানের পাশাপাশি আউশ ধানের আবাদ বাড়াতে হবে। তাই বর্তমান কৃষি বান্ধব সরকার আউশ ধানের আবাদ বৃদ্ধির জন্য প্রনোদনা সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থা নিয়েছে। এই প্রনোদনার সহায়তা কাজে লাগিয়ে আউশ ধান চাষ বৃদ্ধির আহবান জানান। পরিশেষে তিনি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীগণকে কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতার মাধ্যমে আউশ ধান উৎপাদন ও কৃষি উন্নয়নে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

পোরশা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর উদ্যোগে গত ২৪ এপ্রিল উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে চলতি খরিপ-১/২০২২-২৩ মৌসুমে আউশ উৎপাদন বৃদ্ধিতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের কৃষি পূনর্বাসন কর্মসূচীর আওতায় বীজ ও সার বিতরনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। পোরশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার  মো. নাজমুল হামিদ রেজার সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পোরশা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. মঞ্জুর মোরশেদ চৌধুরী, নওগাঁ জেলা পরিষদের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান মো. মোফাজ্জল হোসেন ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. কাজীবুল ইসলাম।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ সঞ্জয় কুমার সরকার স্বাগত বক্তব্যে বলেন, বর্তমান কৃষিবান্ধব সরকার কৃষি পূনর্বাসন কর্মসূচীর আওতায় বিগত বছরের ন্যায় চলতি আউশ মৌসুমে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি কল্পে উফসী আউশ ধান চাষে ১ বিঘা জমির জন্য ৫ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার প্রদানের ব্যবস্থা নিয়েছে। সেই লক্ষ্যে উপজেলার উফসী আউশ ধান চাষে ১,১০০ জন ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষককে আউশ প্রনোদনা প্রদান করা হচ্ছে। এই সকল সরকারী প্রনোদনার সহায়তা কাজে লাগিয়ে আউশ ধানের আবাদ বৃদ্ধিতে এগিয়ে আসার জন্য তিনি উপস্থিত কৃষকদের অনুরোধ জানান।

বিশেষ অতিথি মহোদয় তার বক্তব্যে বলেন, জনসংখ্যা বৃদ্ধির ফলে জমির পরিমান দিন দিন কমে যাচ্ছে ফলে বোরো ধানের পাশাপাশি আউশ ধানের চাষও বাড়াতে হবে। কারণ আউশ ধান চাষে প্রাকৃতিক দুর্যোগের আশংকা কম থাকে। তাই তিনি সকল কৃষকদের আউশ ধান চাষে প্রনোদনা সহায়তা কাজে লাগিয়ে উৎপাদন বৃদ্ধিতে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ, প্রনোদনা সহায়তাগ্রহনকারী ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকসহ  প্রায় ১,০০০ জন উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 1160 times!