Saturday 28th of May 2022
Home / খাদ্য-পুষ্টি-স্বাস্থ্য / ভোক্তার সচেতনতা নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে -খাদ্যমন্ত্রী

ভোক্তার সচেতনতা নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে -খাদ্যমন্ত্রী

Published at এপ্রিল ১৬, ২০২২

শনিবার (১৬ এপ্রিল) ভোক্তা আয়োজিত “স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী : খাদ্য নিরাপত্তা ও ভোক্তা অধিকার সুরক্ষায় প্রত্যাশা ও অর্জন” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, এমপি।

নিজস্ব প্রতিবেদক: খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, বর্তমান সরকারের আমলে কৃষকবান্ধব নীতির কারণে কৃষি উৎপাদন বেড়েছে বহু গুণ। ধান, মাছ, মাংস ও সবজি উৎপাদনে কৃষকের সক্ষমতা বেড়েছে। এখন নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাবার ভোক্তার কাছে পৌঁছাতে কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

শনিবার (১৬ এপ্রিল) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্র (কারস) মিলনায়তনে ভলান্টারি কনজুমারস ট্রেনিং এন্ড অ্যাওয়ার্নেস সোসাইটি (ভোক্তা)  আয়োজিত “স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী : খাদ্য নিরাপত্তা ও ভোক্তা অধিকার সুরক্ষায় প্রত্যাশা ও অর্জন” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, কৃষকের মাঠ থেকে ভোক্তার টেবিল সবখানেই খাবার নিরাপদ হতে হবে। এই চেইনের যে কোন পর্যায়ে খাবার অনিরাপদ হয়ে যেতে পারে। একারেন ভোক্তাকে সবার আগে সচেতন হতে হবে। ভোক্তার সচেতনতা নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে ভূমিকা রাখবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ভোক্তার সভাপতি অধ্যাপক ড. হোসেন উদ্দিন শেখর এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান ও গ্লোবাল টেলিভিশনের সিইও সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. মীজানুর রহমান বলেন, পৃথিবীর কোন দেশে আমাদের দেশের মতো বাজার মনিটরিং নেই। মনিটরিং হতে হবে কত মজুদ আছে, সরবরাহ ঠিক মতো হচ্ছে কিনা? এসময় তিনি পাঠ্যক্রমে নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাবার বিষয় অন্তর্ভুক্ত করার আহবান জানান।

সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বলেন, বাজারে চাহিদা ও যোগানের কোন সংকট নেই। অনেক সময় তথ্যের ঘাটতির কারনে সংকট তৈরি হয়।

সেমিনারে মূল নিবন্ধ উপস্থাপন করেন ভোক্তার পরিচালক মহসীনুল করিম লেবু। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ভোক্তার নির্বাহী পরিচালক খলিলুর রহমান সজল। মূল নিবন্ধের ওপর আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশনের উপদেষ্টা এস এম সিদ্দিকী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর বিজ্ঞান গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বিজ্ঞানী অধ্যাপক  ড. লতিফুল বারী।

This post has already been read 229 times!