Thursday 19th of May 2022
Home / আঞ্চলিক কৃষি / বাঘায় কৃষি উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব

বাঘায় কৃষি উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব

Published at জানুয়ারি ১৮, ২০২২

মো. এমদাদুল হক (রাজশাহী) : রাজশাহীর বাঘায় আধুনিক প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে কৃষি উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ন সচিব জালাল আহমেদ। গত সোমবার (১৭ জানুয়ারি) বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শফিউল্লাহ সুলতানকে সাথে নিয়ে তিনি প্রকল্প বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

উপজেলা কৃষি অফিসার জানান, কৃষি পণ্য উৎপাদন ও বৃদ্ধির লক্ষে আধুনিক প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে কৃষি উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যেমে কৃষি খাতকে উন্নয়নমূলক গতিশীল করার উদ্যোগ নিয়েছে বর্তমান সরকার ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। তারই ধারাবাহিকতায় রাজশাহীর বাঘায় আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার ফসল, ঔষুধি গাছ ও নানা প্রকার ফল এবং ফুল বাগান গড়ে উঠেছে অত্রউপজেলায়। উপজেলার সকল কৃষি কার্যক্রম সম্পর্কে পরিদর্শনকারী দলকে অবহিত করেন। সরজমিনে পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

পরিদর্শনকারী দল এর সাথে উপস্থিত ছিলেন প্রকল্প পরিচালক, ড. এস. এম. হাসানুজ্জামান, কৃষি অর্থনীতিবিদ ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষিবিদ রেহানা সুলতানা, উপপ্রকল্প পরিচালক এস.এম.আমিনুজ্জামান, প্রকল্পের মনিটরিং অফিসার মো: সাহেদ হাসান, নাইম হাসান ও কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ মো. কামরুল ইসলাম। উপজেলার চকরাজাপুর ইউনিয়নের পদ্মার চর এখন ফসলে মুনোমুগ্ধকর এক রুপ ধারণ করেছে তা দেখে পরিদর্শনকারী অভিভূত হন। সেখানে পেঁয়াজ, রসুন, আলু, বেগুন, টমেটো, সিম, লাউ, মিস্টি কুমড়া, করলা, বরই, পেয়ারা, পটল, ধান ও গম থেকে শুরু করে সকল ফসলই উৎপাদন হয় আম, রাজশাহীকে আমের জন্য বিখ্যাত সবারই জানা এখন আধুনিক জাতগুলো আরো সম্প্রসারিত হচ্ছে। তন্মমধ্যে রাজশাহী জেলার নয়টি উপজেলার মধ্যে আটটি উপজেলায় যে পরিমান আম বাগান রয়েছে তার চেয়ে বেশি পরিমান আম বাগান রয়েছে বাঘা উপজেলায়।

পরিদর্শনকারী টিম প্রকল্পের অধীন বাস্তবায়িত নতুন ফসল বিন্যাস (ফুল,পাট,রোপা আমন) প্রযুক্তির আওতায় গ্লাডিওলাস ফুল বাগানসহ অনান্য কার্যক্রম পরিদর্শন করেন এবং ৭০% ভর্তুকিতে সরবরাহকৃত মিনি গার্ডেন টিলার, ফুট পাম্প স্প্রেয়ার যন্ত্রপাতি প্রাপ্ত কৃষক গ্রুপের সাথে মতবিনিময় করেন।

This post has already been read 483 times!