Tuesday 24th of May 2022
Home / আঞ্চলিক কৃষি / সিরাজগঞ্জের কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ

সিরাজগঞ্জের কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ

Published at অক্টোবর ৩১, ২০২১

আশিষ তরফদার (পাবনা) : গম, ভূট্টা, সরিষা, সূর্যমুখী, চিনাবাদাম, শীতকালীন পেঁয়াজ, মুগ, মসুর, খেসারি ফসলের আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার (৩০ অক্টোবর ) কামারখন্দ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ হল রুমে রবি মৌসুরে ২০২১-২২ অর্থ বছরে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা: মেরিনা সুলতানা এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য (কামারখন্দ- সিরাজগঞ্জ সদর-২) অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবে মিল্লাত (মুন্না)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এস এম শহিদুল্লাহ সবুজ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সম্পা খাতুন, কামারখন্দ উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মো. সেলিম রেজা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আনোয়ার সাদাত বলেন, রবি মৌসুমে ফসল উৎপাদন খরচ কমাতে ও বৃদ্ধির লক্ষে কৃষি দপ্তরের মাধ্যমে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মাঝে গম, ভূট্টা, সরিষা, সূর্যমুখী, চিনাবাদাম, শীতকালীন পেঁয়াজ, মুগ, মসুর, খেসারি ফসলের বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ হচ্ছে, তা ফসলে জমিতে ব্যবহার ও উৎপাদন বৃদ্ধি করা জন্য চাষীদের অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবে মিল্লাত, এমপি (মুন্না) বলেন, কৃষি ও কৃষক সমৃদ্ধ হলে, দেশ ও জাতি সমৃদ্ধশালী হবে। বর্তমান সরকার প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে যথারীতি বীজ ও সার বিতরণ করছে। কৃষি জমিতে কৃষি বিভাগের সঠিক দিক নির্দেশনার ফলে কৃষককূল সঠিকভাবে সার, বীজ, এবং সেচের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় দেশের কৃষির উন্নয়ন এগিয়ে চলেছে। তিনি আগত সকল কৃষককে যার যতটুকু জমি আছে তাতেই কৃষি বিভাগের পরামর্শ মোতাবেক উন্নত আবাদের মাধ্যমে নিজেদেও ভাগ্য পরিবর্তনের আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের হাতে প্রণোদনার বীজ ও সার তুলেদিয়ে এর শুভ উদ্বোধন করেন।  বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার ৩ হাজার ৯০ জন কৃষকদের মাঝে বিতরণ করা হয়।

This post has already been read 494 times!