Friday 27th of May 2022
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / হটলাইন ১৬১২১ : প্রতিকার পাবেন অধিকার বঞ্চিত ভোক্তা

হটলাইন ১৬১২১ : প্রতিকার পাবেন অধিকার বঞ্চিত ভোক্তা

Published at মার্চ ১৫, ২০২০

রবিবার (১৫ মার্চ) বাংলাদেশ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিশ্বভোক্তা অধিকার দিবস-২০২০ উপলক্ষে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর আয়োজিত আলোচনা সভা ও হটলাইন (১৬১২১) উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এমপি।

নিজস্ব প্রতিবেদক: এখন থেকে ১৬১২১ নাম্বারে ফোন করে প্রতিকার পাবেন বঞ্চিত ভোক্তা। কোন ভোক্তা অধিকার বঞ্চিত হলে উক্ত  হট লাইনে ফোন করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রবিবার (১৫ মার্চ) বাংলাদেশ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিশ্বভোক্তা অধিকার দিবস-২০২০ উপলক্ষে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর আয়োজিত আলোচনা সভা ও হটলাইন (১৬১২১) উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এমপি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ভোক্তার অধিকার প্রতিষ্ঠায় সংশ্লিষ্ঠ সকলকে সচেতন হতে হবে। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে  হয়রানি বা জরিমানা আদায়ের জন্য তৈরি করা হয়নি। আমরা চাই, যাতে কারো প্রতি এ আইনের প্রয়োগ করতে না হয়। কোন ভোক্তা অধিকার বঞ্চিত হয়ে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ভোক্তা বাতায়ন হটলাইন ১৬১২১ নম্বরে ফোন করলেই প্রতিকার পাওয়া যাবে।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ভোক্তার অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করে গেছেন। দেশের অনেক মানুষের ভোক্তা অধিকার বিষয়ে ধারনা ছিল না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৯ সালে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন পাস করে ভোক্তার অধিকার সুরক্ষিত করেছেন। এখন যে কোন ভোক্তা অধিকার বঞ্চিত হলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। সরকার ভোক্তা ও বাণিজ্যবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করতে আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন বাস্তবায়নে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। কাউকে হয়রানি না করে অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সে লক্ষ্যকে সামনে রেখে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। অধিকার নিয়ে মানুষ এখন অনেক সচেতন। ভোক্তাও আগের যে কোন সময়ের চেয়ে বেশি সচেতন। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন এর সুফল পেতে শুরু করেছেন দেশের মানুষ।

বাণিজ্যসচিব  ড. মো. জাফর উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, ঢাকা বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান, এফবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম, কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ(ক্যাব)এর সভাপতি গোলাম রহমান, বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবং অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক(অতিরিক্ত সচিব) বাবলু কুমার সাহা।

This post has already been read 1160 times!