টঙ্গীর অস্থায়ী কেমিক্যাল গোডাউন নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

নিজস্ব সংবাদদাতা: টঙ্গীর অস্থায়ী কেমিক্যাল গোডাউন ঝুঁকিমুক্ত ও পরিবেশবান্ধব হবে। স্থানীয় ঘনবসতি বিবেচনা করে এই আধুনিক কেমিক্যাল গোডাউনে নিরাপত্তার সকল ব্যবস্থা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। শনিবার (১৪ মার্চ) গাজীপুরের টঙ্গীর কাঠালদিয়ায় নতুন অস্থায়ী কেমিক্যাল গোডাউন নির্মাণ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এসব কথা বলেন। শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এবং যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল।

অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী অস্থায়ী কেমিক্যাল গোডাউন নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নের কারণে কেউ ক্ষতিগ্রস্ত বা গৃহহীন হবেনা বলে সবাইকে আশ্বস্ত করেন। তিনি আরো বলেন, টঙ্গীসহ দেশের যেখানে সুযোগ রয়েছে, সেখানে নতুন নতুন শিল্প কারখানা স্থাপন করা হবে। সেই সঙ্গে শ্রমিকদের বাসস্থান, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্প হিসেবে নির্মাণাধীন পরিবেশবান্ধব কেমিক্যাল গোডাউনটি ডিসেম্বর ২০২০-এর মধ্যেই নির্মাণ করা হবে। গোডাউনে দুর্ঘটনার কোনো সম্ভাবনা নেই উল্লেখ করে শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, অগ্নিনির্বাপন সুবিধাসহ প্রয়োজনীয় সকল নিরাপত্তা ব্যবস্থা এখানে রাখা হয়েছে।

শিল্প প্রতিমন্ত্রী প্রকল্প এলাকায় অস্থায়ীভাবে বসবাসকারীদের নিজ নিজ স্থায়ী ঠিকানায় যাবার আহবান জানিয়ে বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যেক গৃহহীনকে ঘর নির্মাণ করে দিবেন। এই বিশেষ সুবিধা কাজে লাগানোর পরামর্শ দিয়ে শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রামাঞ্চলসহ সকল পিছিয়ে পড়া এলাকায় ক্ষুদ্র, মাঝারি ও বৃহৎ শিল্প কারখানা স্থাপনের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী এসময় রাসায়নিক পদার্থসমূহের নিরাপত্তায় লাইসেন্স প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকে তৎপর থাকার আহ্বান জানান। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল রাসায়নিক পদার্থের পূর্ণ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহবান জানান।

সভাপতির বক্তৃতায় শিল্প সচিব বলেন, পুরাতন ঢাকার রাসায়নিক গোডাউনসমূহ নিরাপদ স্থানে স্থানান্তরের লক্ষে স্বল্পমেয়াদী উদ্যোগের অংশ হিসেবে ইতিমধ্যে ঢাকার শ্যামপুরে নতুন গোডাউনে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। আজ টঙ্গীর কাঠালদিয়ায় দ্বিতীয় স্থানে গুদামের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হলো। স্থায়ীভাবে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে কেমিক্যাল গোডাউনসমূহ স্থানান্তরের প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে বলে শিল্পসচিব উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতায় বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মোঃ রইছ উদ্দিন বলেন, ৬ একর জমির ওপর প্রায় ৯১ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ব্যয়ে টঙ্গীতে অস্থায়ী কেমিক্যাল গোডাউন নির্মাণ করা হচ্ছে।  প্রকল্পের আওতায় ৫৩টি অস্থায়ী গুদাম, ১ লাখ গ্যালন ধারণক্ষমতা সম্পন্ন ওভারহেড ও আন্ডারগ্রাউন্ড পানির ট্যাংক, বৈদ্যুতিক সাবস্টেশন, জেনারেটর, ফায়ার হাইড্রেন্ট, সংযোগ সড়ক, আরসিসি ড্রেন ও নিরাপত্তা চৌকি নির্মাণ করা হবে।

শিল্প মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল কর্পোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দসহ প্রকল্প পরিচালক এসময় উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 2186 times!

Check Also

কৃষির সবচেয়ে বড় প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বর্তমান কৃষিকে ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের জন্য টেকসই ও নিরাপদ বাণিজ্যিক কৃষিতে রূপান্তরের মাধ্যমে খাদ্য …