Tuesday 17th of May 2022
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / বিটিএমএ প্রতিনিধি দলের সাথে কৃষি মন্ত্রীর বৈঠক

বিটিএমএ প্রতিনিধি দলের সাথে কৃষি মন্ত্রীর বৈঠক

Published at সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৯

বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) কৃষি মন্ত্রী ড.মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি’র সাথে মন্ত্রণালয় তাঁর অফিসকক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারীখাত ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, এমপি এর নের্তৃত্বে বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস এসোসিয়েশনের (বিটিএমএ) এর  প্রতিনিধি দলের সাথে বৈঠক করেন।

বাংলাদেশে সমতলভূমির  তুলা চাষ এলাকা ও উৎপাদন ক্রমান্বয়ে কমে যাচ্ছে। সাম্প্রতিকালে হাইব্রিড ও উচ্চফলনশীল জাতের তুলা চাষ প্রবর্তনের ফলে তুলার ফলন বৃদ্ধি পেয়েছে।  এখন আমাদের তুলার উৎপাদন প্রায় ২ লাখ বেল । যা চাহিদার তুলনায় নগণ্য, বছরে ৮০ লাখ বেল তুলা আমদানি করা হয়। তুলার চেয়ে অন্যান্য ফসল লাভজনক বিধায় কৃষকরা অন্য ফসলে যাচ্ছে ফলে উৎপাদন কমে যাচ্ছে।

বর্তমানে তুলা উন্নয়ন বোর্ড তুলা গবেষণা, এর সম্প্রসারণ, বীজ উৎপাদন ও বিতরণ, প্রশিক্ষণ, বাজারজাতকরণ ও জিনিং এবং ঋণ বিতরণ প্রভৃতি কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে আসছে। বর্তমানে সমতল এলাকার সমভূমির জাতের তুলার আবাদ হচ্ছে এবং অতি সম্প্রতি ৩টি পার্বত্য জেলাতেও পাহাড়ি জাতের পাশাপাশি সমভূমির জাতের তুলার চাষাবাদ হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, দেশের টেক্সটাইল মিলগুলো ভালো করছে। এক সময় কাপড় ছিল আমদানি নির্ভর, আজ দেশের চাহিদার সম্পূর্ণ কাপড় দেশে তৈরী হচ্ছে। টেক্সটাইল মিলের অন্যতম উপাদান হচ্ছে তুলা। আমেরিকা,ব্রাজিল হতে তুলা আমদানি করা হয়। এছাড়া ভারত ও পাকিস্তান থেকে আমদানি করা হয়।

প্রতিনিধিবৃন্দ এসময় মন্ত্রীর কাছে কিছু দাবি তুলে ধরেন। দাবি সমুহের মধ্যে আইপি আবেদন এর সময় ও খরচ কমানো এবং পূর্বের ন্যায় করা Fumigation খরচ কমানো। বর্তমানে আইপি  আবেদন অনলাইনএ হওয়াতে সময় ও শ্রম দটো কম লাগে এটা আরো সহজিকরণ করা। এছাড়া SRO (Special Release order) সহজিকরণ করাসহ আমেরিকা ও ব্রাজিলের Fumigation বহাল রাখার পদ্ধতি পুর্ণবিবেচনা করার আহবান জানান।

কৃষি মন্ত্রী মনোযোগ সহকারে তাদের কথা শুনেন। বিদ্যমান সমস্যাগুলো সমাধান করে ঢাকা ও চট্টগ্রামের অফিস ডিজিটাইলেশন ও  অটোমেশন করা হবে।

এসময়  মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সনৎ কুমার সাহা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মো. আব্দুর মুঈদ, তুলা উন্নয়ন বোর্ডে নির্বাহী পরিচালক ড. ফরিদ উদ্দিন, উদ্ভিদ সংগোনিরোধ শাখার  পরিচালক ড.মো: আজাহার আলী উপস্থিত ছিলেন। এসময় মন্ত্রী প্রতিনিধিবৃন্দদেরকে বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউট পরিদর্শনের আহবান জানালে তারা পরিদর্শনে সম্মত হন।

গণমাধ্যমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন,আমাদের দেশে আশির দশকে গার্মেন্টস শুরু হয়। এই শিল্পের অন্যতম উপাদান সুতা যা তুলা থেকে উৎপন্ন  করা হয়। তুলা আমদানি করতে হয়, তাই এর সাথে কোন পোকামাকড় বা জীবাণু আসে কিনা তা পরিক্ষার দায়িত্ব কৃষি মন্ত্রণালয়ের। তাই আমাদের কিট পতঙ্গমুক্ত তুলা আমদানি করতে হবে। সে ক্ষেত্রে আমেরিকা ও ব্রাজিলের তুলায় কিট পতঙ্গ বা জীবাণু থাকার আশংকা নেই বল্লেই চলে। আমাদের চেষ্টা থাকবে আমদানি নির্ভরতা যতটুকু পাড়া যায় কমানো।

প্রতিনিধি দলের  অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন  মোহাম্মদ আলী খোকন, প্রেসিডেন্ট বিটিএমএ; তপন চৌধুরী, প্রাক্তণ তত্ত্বাবধায়ক   সরকারের উপদেষ্টা, এ মতিন চৌধুরী, প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বিটিএমএ; এ কে আজাদ, প্রাক্তণ প্রেসিডেন্ট বিটিএমএ; সাব্বির আহমেদ চৌধুরী, কনসালট্যান্ট, কটন ইউএসএ  এবং ফিরোজ আহমেদ,সেক্রেটারী জেনারেল,বিটিএমএ।

This post has already been read 983 times!