Friday 27th of May 2022
Home / অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য / এসিআইসহ একাধিক ব্যবসায়ী ও সংগঠনের সাথে কৃষি মন্ত্রীর বৈঠক

এসিআইসহ একাধিক ব্যবসায়ী ও সংগঠনের সাথে কৃষি মন্ত্রীর বৈঠক

Published at আগস্ট ৭, ২০১৯

ঢাকা সংবাদদাতা: আমাদের দানাদার খাদ্য শস্য উৎপাদন দিনে দিনে বাড়ছে কিন্তু সে অনুপাতে এর মূল্য পাচ্ছে না কৃষকরা। আমাদেরকে খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণে যেতে হবে। কারণ দিনে দিনে মানুষের খাদ্যভ্যাস পরিবর্তন হচ্ছে। এছাড়াও কৃষিকে আধুনিকায়ন করতে হলে এক্ষেত্রে এর যান্ত্রিকীকরণ প্রধান ও প্রথম কাজ এর সাথে প্রক্রিয়াজাত রপ্তানি সম গুরুত্বপূর্ণ। সরকার কৃষির উন্নয়নে সর্বদাই সচেষ্ট। কৃষিযন্ত্রের ব্যাপারে তিনি বলেন, মূল্য বেশী সেটা কোনো ব্যাপার নয়, মূল হচেছ মেশিন এর সার্ভিস।

বুধবার (৭ আগস্ট) সচিবালয়ে কৃষি মন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এম.পি তাঁর অফিসকক্ষে এসিআইসহ একাধিক ব্যবসায়ী ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠককালে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এম. পি এসব কথা বলেন। সকালে এসিআই গ্রুপের চেয়ারম্যান এম. আনিস উদ দৌলা এর নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দলের সাথে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

কৃষিমন্ত্রী আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষির ব্যাপারে সর্বদাই আন্তরিক। তাঁর আন্তরিকতায় আমরা খুব শীঘ্রই আ্যক্রিডেটেড ল্যাব প্রতিষ্ঠা করবো এবং বিদ্যমান ল্যাবগুলোকে আধুনিকায়ন করা হবে খুব শীঘ্রই।

এসিআই চেয়ারম্যান বলেন, তাদের প্রতিটি হারভেস্টরের সাথে সার্ভিস প্রোভাইডারের সরাসরি যোগাযোগ থাকবে। যে কোনো সমস্যা হলে সে তা সমাধান করে দিবে। কৃষির আধুনিকায়ন, বাণিজ্যিকীকরণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণের ব্যাপারে তিনি বলেন, আমাদের আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে নিজেদের উৎপাদন বাড়াতে হবে। সংরক্ষণ ও প্রক্রিজাত করতে হবে।

তাঁরা রপ্তানির ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা মন্ত্রীর সামনে তুলে ধরে বলেন, যে বিদ্যমান সমস্যা সমাধান করা হলে রপ্তানি দ্বিগুণ হবে। মন্ত্রী, তৎক্ষনাৎ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে ফোন করে সমস্যা সমাধানসহ রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য আন্তরিকতার সাথে কাজ করার নির্দেশ দেন।

সর্বশেষ মেটাল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী সাদিদ জামিল এর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলের সাথে বৈঠক করেন মন্ত্রী। তারা তুলনামূলক কম দামে হারভেস্টার বাজারে এনে এ পর্যন্ত একশটি বিক্রি করেছে বলে জানান।

সাদিদ জামিল বলেন, কৃষি সারা বিশ্বেই ভতুর্কির খাত। তাই কৃষি যন্ত্রে দামের চেয়ে মানের দিক আমাদের গুরুত্ব বেশী। একটা মেশিন বছরে ২০ দিনের মতো ব্যবহার হবে এর মধ্যে কোনো রকম সমস্যা কৃষকের জন্য নিদারুণ কষ্টের, সমাধান নিশ্চিত করতে হবে।

দুপুরে বাংলাদেশ সবজি ফল ও অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলের সাথেও বৈঠক হয় মন্ত্রীর। এস.এম জাহাঙ্গীর আলম সংগঠনের প্রেসিডেন্ট -এর নেতৃত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

This post has already been read 1824 times!