Tuesday 16th of April 2024
Home / পোলট্রি / পোলট্রিতে অনেক নেতিবাচক প্রচারনা আছে যার অধিকাংশই সত্য নয়

পোলট্রিতে অনেক নেতিবাচক প্রচারনা আছে যার অধিকাংশই সত্য নয়

Published at ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৯

ঢাকা: ২০২১ সাল কে সামনে রেখে প্রণীত বর্তমান সরকারের ‘রূপকল্প-২০২১’, ২০২৪ সাল নাগাদ ‘মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে’ উন্নীত হওয়ার সক্ষমতা অর্জন এবং ২০৩০ সাল নাগাদ জাতিসংঘের লাগসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের পোল্ট্রি শিল্প কি অবদান রাখছে- সে বিষয়ে গণমাধ্যমের গেইটকীপারদের অবহিত করা; কাঙ্খিত লক্ষ্য অর্জনের পথে সরকারি নীতি ও সহায়তার ঘাটতি এবং সেক্ষেত্রে গণমাধ্যম কী ধরনের সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে- সে বিষয়ে আলোচনার জন্য শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে গণমাধ্যমের গেইকীপারদের সাথে একটি গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে ওয়ার্ল্ড’স পোল্ট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন- বাংলাদেশ শাখা (ওয়াপসা-বিবি) এবং বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি)। বৈঠকটি সঞ্চালনা করেন সাবেক তথ্য কমিশনার প্রফেসর ড. গোলাম রহমান।

ড. গোলাম রহমান বলেন, যেকোন পণ্য ও সেবার প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থা তৈরি করতে হলে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং তথ্যের দ্বিমুখী প্রবাহের কোন বিকল্প নেই। ডিম সম্পর্কে মানুষের মাঝে অনেক ভুল ধারনা আছে। পোল্ট্রির মাংস এবং সামগ্রিকভাবে এ শিল্প সম্পর্কে অনেক নেতিবাচক প্রচারণা আছে- যার অধিকাংশই হয়তো সত্য নয়। তাই এ সম্পর্কে নিশ্চুপ না থেকে বাস্তবতা তুলে ধরতে হবে। গণমাধ্যম ও পোল্ট্রি শিল্পের মাঝে আস্থার সম্পর্ক তৈরি করতে হবে।

গাজী টেলিভিশনের এডিটর ইন চীফ সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বলেন, বিচ্ছিন্ন যোগাযোগ নয় বরং নিয়মিত যোগাযোগের উপর গুরুত্বারোপ করতে হবে।

দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, আগের চেয়ে পোল্ট্রি শিল্পের সাথে গণমাধ্যমের যোগাযোগ বেড়েছে। প্রয়োজনীয় তথ্যের চাহিদাও  অনেকটা পূরণ হচ্ছে। তবে ডিম ও মুরগির মাংস নিয়ে নেতিবাচক প্রচারণা বন্ধের ইতিবাচক উদ্যোগের ঘাটতি আছে।

দৈনিক প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম মুকুল বলেন, পোল্ট্রি বিষয়ে সাংবাদিকদের দক্ষতা বাড়াতে বিপিআইসিসি কর্তৃক আয়োজিত কর্মশালা, ফেলোশীপ এবং পোল্ট্রি মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ভালো উদ্যোগ।

ডিবিসি নিউজের সম্পাদক প্রণব সাহা বলেন, ব্রাজিল থেকে মুরগি আসছে। এটি দেশীয় শিল্পের জন্য উদ্বেগের বিষয়। পোল্ট্রি শিল্পের বার্ষিক প্রবৃদ্ধি ২০ শতাংশ থেকে কমে ১৫ শতাংশে নেমে এসেছে। এ অবস্থার উন্নতি ঘটাতে হবে। নীতি-নির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হবে।

দি ইনডিপেন্ডেন্ট -এর নির্বাহী সম্পাদক শামীম জাহেদী বলেন, পোল্ট্রি খাতে বিদেশী বিনিয়োগ একটি বড় সমস্যা। কিন্তু সরকারের অবস্থান বিদেশী বিনিয়োগের পক্ষে। তাই পোল্ট্রি’র কোন্ কোন্ এলাকায় বিদেশী বিনিয়োগ সহায়ক হতে পারে সে বিষয় নিয়ে ভাবতে হবে এবং সে সম্পর্কে নীতি-নির্ধারকদের বোঝাতে হবে।

একুশে টেলিভিশনের এডিটর ইন চীফ মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, আপদকালীন সময়ে পোল্ট্রি খাতের সমস্যাগুলো কার্যকরভাবে গণমাধ্যমের সামনে তুলে ধরতে এবং মিডিয়ার তাৎক্ষণিক প্রশ্নের উত্তর জানাতে একটি কমিটি গঠন প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন।

যমুনা টেলিভিশনের বিজনেস এডিটর সাজ্জাদ আলম খান তপু পোল্ট্রি শিল্পের জন্য একটি টেকসই যোগাযোগ কৌশল নির্ধারণের উপর জোর দেন।

চ্যানেল-২৪ টিভি’র বিজনেস এডিটর ফারুক মেহেদী বলেন, কিছু দূর্নীতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী কর ফাঁকি দিয়ে, মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে পণ্য আমদানি করছে। ঐ সমস্ত গুটিকয়েক দুষ্ট লোকের কারণে সরকারের কাছে পোল্ট্রি ব্যবসায়ীদের ইমেজ ক্ষুন্ন হচ্ছে।

দি ডেইলী স্টারের সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার রেফায়াত উল্লাহ্ মৃধা বলেন, একটি ‘পোল্ট্রি মিট সার্টিফিকেশন অথোরিটি’ গঠিত হলে পোল্ট্রি শিল্প সংশ্লিষ্টদের অনেক সমস্যার সমাধান হবে।

বিপিআইসিসি’র সভাপতি মসিউর রহমান বলেন, পোল্ট্রি শিল্পখাতের ৭০-৯০ হাজার বাণিজ্যিক খামারে বর্তমানে ৩৫ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে। জিডিপিতে এ খাতের অবদান প্রায় ১ দশমিক ৬ শতাংশ।

তিনি বলেন, প্রয়োজনীয় কাঁচামাল আমদানিতে উচ্চহারে শুল্কারোপ করা হয়েছে। খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা পূরণ এবং সাশ্রয়ী মূল্যে ডিম ও মাংসের যোগান নিশ্চিত করতে হলে এ খাতকে শুল্কমুক্ত ঘোষণার বিষয়টি পুণঃর্বিবেচনা করতে হবে।

মসিউর রহমান বলেন, দেশে মৎস্য সম্পদের জন্য আলাদা অধিদফতর থাকলেও পোল্ট্রি শিল্পের জন্য এ রকম কোন অধিদফতর নেই, ফলে কাঙ্খিত অগ্রগতি অর্জন সম্ভব হচ্ছেনা।

তিনি আরো বলেন, দেশে পোল্ট্রি ফিডের কাঁচামালের ঘাটতি রয়েছে। ভুট্টা উৎপাদিত হচ্ছে কিন্তু এতে চাহিদার মাত্র ৪০ শতাংশ পূরণ হচ্ছে বাকিটা ব্রাজিলসহ বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করতে হচ্ছে। সয়াবিনের উৎপাদন হয়না বললেই চলে, ফলে তা পুরোপুরি আমদানি নির্ভর। এছাড়া ভ্যাকসিন, ওষুধসহ প্রচুর উপকরণ আমদানি করতে হচ্ছে- যার কারণে উৎপাদন খরচ বেড়ে  গেছে। চট্টগ্রাম বন্দরে কাঙ্খিত সেবা পাওয়া যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, মাত্র চার দশক আগেও খাওয়ার ডিম, হ্যাচিং ডিম, একদিন বয়সী বাচ্চা, প্যাকেট ফিড শতভাগ আমদানি হতো কিন্তু এগুলো এখন দেশেই উৎপাদিত হচ্ছে। এতে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হচ্ছে।

ওয়াপসা- বাংলাদেশ শাখার সভাপতি শামসুল আরেফিন খালেদ বলেন, পোল্ট্রি খাতের উন্নয়নে মিডিয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। মিডিয়ার কারণে দেশের পোল্ট্রি শিল্পখাত বিষয়ে দেশের মানুষের পাশাপাশি বহির্বিশ্বের লোকজন জানতে পারছেন। কিন্তু এ খাতের আগামীর ভিশন জাতির সামনে তুলে ধরতে আরও ব্যাপক প্রচারণা ও জনসচেতনতার প্রয়োজন। এই কাজগুলো ভালোমতো করতে হলে এ খাতের সঙ্গে মিডিয়ারও সম্পৃক্ততা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, সকলেই নিরাপদ খাদ্য চায়। সে লক্ষ্যেই কাজ করছে পোল্ট্রি শিল্প। ২০২১, ২০২৪ এবং ২০৩০ সালের লক্ষ্যকে সামনে রেখে একটি রোডম্যাপ তৈরি করা হচ্ছে, এর পাশাপাশি একটি ডিজিটাল প্লাটফর্ম তৈরির কাজও শুরু হয়েছে বলে জানান খালেদ।

গোলটেবিল বৈঠকে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- আরটিভি’র চীফ নিউজ এডিটর লুৎফর রহমান, ইনডিপেন্ডেন্ট টিভি’র চীফ রিপোর্টার আশিষ সৈকত, মোহনা টেলিভিশনের যুগ্ম বার্তা সম্পাদক শহিদুল আলম ইমরান, এস.এ টিভি’র অ্যাসিটেন্ট নিউজ এডিটর মোস্তফা মনোয়ার সুজন, দৈনিক যুগান্তরের সহকারি বার্তা সম্পাদক হোসেন শহীদ মজনু, দৈনিক সমকালের বিজনেস এডিটর জাকির হোসেন, দৈনিক যায় যায় দিনের বিজনেস এডিটর তোফায়েল আহমেদ, দি ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেসের চীফ রিপোর্টার এস.এম জাহাঙ্গীর, দৈনিক সংবাদের চীফ রিপোর্টার সালাম জুবায়ের প্রমুখ।

This post has already been read 4570 times!