Saturday 24th of February 2024
Home / অন্যান্য / হাবিপ্রবি উপাচার্যের সভাকক্ষে লাথি মারার অভিযোগ

হাবিপ্রবি উপাচার্যের সভাকক্ষে লাথি মারার অভিযোগ

Published at নভেম্বর ৪, ২০১৮

হাবিপ্রবি, দিনাজপুর: দিনাজপুরের হাজী দানেশ বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির সভাকক্ষের দরজায় লাথি মারার অভিযোগ উঠেছে। উপাচার্যের সভাকক্ষে আলোচনাসভা চলাকালীন দরজায় লাথি মারার প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সংগঠন প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম। রোববার (৪ নভেম্বর) বিকেল ৫ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার বরাবর লিখিতভাবে এ বিচারের দাবি জানানো হয়।

লিখিত বক্তব্যে জানানো হয়, গত ৩১ অক্টোবর উপাচার্য মহোদয়ের সাথে প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করে। এ সময় প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের নেতৃবৃন্দ সুনির্দিষ্ট অনিয়ম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অসংগতি বিষয়ে আলোকপাত করেন। আলোচনার এক পর্যায়ে প্রফেসর ড. ফাহিমা খানম, অর্থনীতি বিভাগ, উত্তেজিত হয়ে উপাচার্য মহোদয়ের উপস্থিতি তোয়াক্কা না করে টেবিলে থাপ্পড় মারেন এবং গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সভাটি ভুন্ডুল করে দেন। ড. খানম উত্তেজিত হয়ে গেলে উপাচার্য নিজেই থামাতে চাইলেও তিনি উপাচার্যের নির্দেশ অমান্য করেন। তাৎক্ষনিকভাবে প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের শিক্ষকবৃন্দ এহেন আচরণের প্রতিবাদ করেন। ঠিক একই সময়ে আলোচনা কক্ষের দরজায় বাহির থেকে কতিপয় ব্যক্তি উপুর্যপরি লাথি মারেন। তৎক্ষনাৎ আলোচনা সভায় উপস্থিত কয়েকজন শিক্ষক দরজার কাছে গেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী রিয়াদ, অ্যামবুলেন্সের ড্রাইভার জাহাঙ্গীর এবং প্রকৌশলী ফারুককে দেখতে পান। এ সময় তারা শিক্ষকগণকে উদ্দেশ্য করে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের নেতৃবৃন্দ মনে করেন, উপাচার্য মহোদয়ের সাথে আলোচনা সভা চলাকালে সভাকক্ষে যে কেউই লাথি মারলে, তা উপাচার্য মহোদয়কেই লাথি মারার সামিল। আলোচনা সভা অযাচিতভাবে ভুন্ডুলকারী ড. খানম ও লাথি মারার (ভিডিও ফুটেজ দেখে) সাথে জড়িত সকল অপরাধীদের অতিদ্রুত বিচারের আওতায় আনার জন্য জোর দাবী জানায়।

উল্লেখ্য, মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও আওয়ামী মুল্যবোধে বিশ্বাসী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম।

This post has already been read 2481 times!