Sunday 25th of September 2022
Home / অন্যান্য / রাবিতে সাংবাদিক পেটাল ছাত্রলীগ

রাবিতে সাংবাদিক পেটাল ছাত্রলীগ

Published at জুলাই ১১, ২০১৭

এস.এম.আল-আমিন, রাবি প্রতিনিধি: বাস ভাংচুরের সময় ছবি তোলায় ইংরেজী দৈনিক দ্য ডেইলী স্টারের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) প্রতিনিধি আরাফাত রহমানকে বেধড়ক পিটিয়েছে ছাত্রলীগ। সোমবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মারধরের শিকার আরাফাত বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এবং রাবি রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যনির্বাহী সদস্য।

মারধরকারী ছাত্রলীগ নেতা আহমেদ সজীব বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত গণিত বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী, সাইফুল ইসলাম বিজয় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এবং আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী, আবিদ আল হাসান লাবন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, এদিন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটে দেশ ট্রাভেলস’র একটি বাসে ভাংচুর করছিলো ছাত্রলীগ। এ সময় ডেইলী স্টারের প্রতিনিধি আরাফাত রহমান ছবি তুলতে গেলে তাকে বেধড়ক মারধর শুরু করে ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম বিজয়, আহমেদ সজিব, আবিদ আল হাসান লাবনসহ ১০-১২ জনের একটি দল। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হলেও প্রাথমিক চিকিৎসার পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনা অস্বীকার করে ছাত্রলীগ নেতা বিজয় জানান, ছাত্রলীগের কেউ মারধর করেনি। ‘সাধারণ শিক্ষার্থীরা’ তাকে মারধর করেছে। তার সঙ্গে বাসের সুপারভাইজারের কথা কাটাকাটি হয়েছে কিনা, জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ‘আমি ও সভাপতি ঘটনাটি জানার সঙ্গে সঙ্গেই সেখানে গিয়ে খোঁজ-খবর নিয়েছি। ওখানে আমাদের ছাত্রলীগের কেউ তাকে মারধর করেনি। আর যদি মারধরের সঙ্গে ছাত্রলীগের কেউ জড়িত থাকে তবে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

তবে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ভিন্ন কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমি যতটুকু শুনেছি, একজন পুলিশ কনস্টেবল তাকে (আরাফাত রহমান) মেরেছে।’

এ অভিযোগ অস্বীকার করে পুলিশের মতিহার থানার পরিদর্শক মাহবুব সাংবাদিকদের জানান, তাকে (আরাফাত রহমান) ছাত্রলীগের নেতারা মারধর করেছে, পুলিশের কেউ নয়।

This post has already been read 2689 times!