রফতানিযোগ্য নিরাপদ আম উৎপাদন নিয়ে নওগাঁয় মতবিনিময় সভা

মো. আব্দুল্লাহহিলকাফি (রাজশাহী) : গত ৩০ এপ্রিল বেলা ৩টায় নওগাঁ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ২০২২-২৩ অর্থবছরে রফতানিযোগ্য আম উৎপাদন প্রকল্পের আওতায় আম উৎপাদনকারী, রফতানিকারক, বাজারজাতকারীসহ অন্যান্য স্টেক হোল্ডারদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নওগাঁর উপপরিচালক কৃষিবিদ মো: আবুল কালাম আজাদ। উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নওগাঁর জেলা প্রশাসক  খালিদ মেহেদী হাসান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: গাজিউর রহমান।

সভায় নওগাঁ থেকে আম রপ্তানি বাড়ানো, আমের সম্ভাবনা-সমস্যা সহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ের ওপর বিশদ আলোচনা হয়। এই সভায় নওগাঁর আমের ব্র্যান্ডিংয়ের উদ্যোগের জন্য আসন্ন আম মৌসুমে প্রথমবারের মত বড় পরিসরে “আম উৎসব” এর আয়োজন করা হবে বলে নওগাঁর জেলা প্রশাসক মহোদয় তাঁর অভিব্যাক্তি ব্যক্ত করেন। এছাড়া নিরাপদ ও রফতানিযোগ্য আম উৎপাদন ও নওগাঁর আমের রফতানি বাড়াতে বিশেষ সেল গঠন করা হয়।

এছাড়াও একই দিনে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নওগাঁর আয়োজনে বেলা ১০ টায় উক্ত দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ২০২২-২৩ অর্থবছরে রফতানিযোগ্য আম উৎপাদন প্রকল্পের আওতায় আম উৎপাদনকারী, রফতানিকারক, বাজারজাতকারীসহ অন্যান্য স্টেক হোল্ডারদের নিয়ে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়।

কিছুদিন আগেও নওগাঁর দিগন্ত মাঠগুলোয় মূলত ধান, গম, সরিষা সহ বিভিন্ন ফসরের আবাদ হতো আবাদ হতো। এখন সেই সব ফসলি মাঠের অনেকটা জায়গাজুড়ে চাষ হচ্ছে বিভিন্ন ফল বিশেষ করে আম। এখন লাভজনক হওয়ায় বাণিজ্যিকভাবে আমবাগান গড়ে তোলা হচ্ছে। নওগাঁর বিভিন্ন উপজেলায় প্রায় ৩০ হাজার হেক্টর জমিতে আম চাষ হয় এবং সাড়ে ৩ লাখ মেট্রিক টন আম উৎপাদন হয়। যার বাজার মূল্য ২৫০০ হাজার কোটি টাকার বেশি। এই জেলায় পোরশা এবং সাপাহার উপজেলায় বেশি আম চাষ হয়।

This post has already been read 1060 times!

Check Also

বারিতে সনাক্তকরণ, অগ্রাধিকার এবং প্রমাণিত প্রযুক্তি নির্বাচন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

গাজীপুর সংবাদদাতা: বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর বীজ প্রযুক্তি বিভাগ এর আয়োজনে আজ মঙ্গলবার …