Monday 17th of June 2024
Home / আঞ্চলিক কৃষি / “আমরা যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি, এই ছোট্ট দেশে নিজের খাদ্য আমরা নিজেই তৈরি করব”-কৃষি সচিব

“আমরা যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি, এই ছোট্ট দেশে নিজের খাদ্য আমরা নিজেই তৈরি করব”-কৃষি সচিব

Published at মার্চ ৩, ২০২৩

রাজশাহী সংবাদদাতা: শুক্রবার (০৩ মার্চ) চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার শেরপুর গ্রামে ক্রপ জোনিং প্রকল্পের “খামারি” মোবাইল অ্যাপ-এর কার্যকারিতা মাঠ পর্যায়ে যাচাই বিষয়ক মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। গমের আধুনিক জাত বারি গম ৩৩-এর প্রদর্শনী ট্রায়ারের মাঠে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  ওয়াহিদা আক্তার, সচিব, কৃষি মন্ত্রণালয়। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডক্টর শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, নির্বাহী চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল এবং অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ড. মো. আব্দুস সালাম, সদস্য পরিচালক ও কোঅডিনেটর, ক্রপ জোনিং প্রকল্প, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল। অনুষ্ঠানটির আয়োজক ছিল বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল ও মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট এবং অর্থায়নে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ফাউন্ডেশন, ফার্মগেট, ঢাকা।

আলোচনায় বক্তরা বলেন, “খামারি” অ্যাপটি বাংলাদেশের কৃষক ও অন্যান্য উপকারভোগির ব্যাবহার উপযোগি একটি কার্যকর মোবাইল অ্যাপ। এই অ্যাপ স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে অবদান রাখবে। এ অ্যাপসের মাধ্যমে ফসল মৌসুম অনুযায়ী কৃষক তার জমির উপযোগি ফসল, মাটির উর্বরতামান অনুযায়ী ফসলভিত্তিক সার সুপারিশ, ফসল জাত, ফলন ও জীবনকাল, ফসল বীজের পরিমান জানতে পারবেন। বাংলাদেশের আয়তন ছোট হলেও এখানে বিভিন্ন ধরনের মাটি এবং জলবায়ু পরিলক্ষিত হয়। এই কারণে এলাকাভিত্তিক ফসল নির্বাচন এখন সময়ের দাবী। এই অ্যাপে উপজেলা ভিত্তিক উপযোগি ফসল এলাকা, ফসল বিন্যাস, ফসল উৎপাদন প্রযুক্তি ইত্যাদি তথ্য সম্পর্কে জানা যাবে। তাই এটি আগামীর কৃষিতে নতুনত্ত্ব আনবে।

এরপর সম্মানিত সচিব চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার আমনুরা গ্রামে সরেজমিন গবেষণা বিভাগ রাজশাহীর আয়োজনে “বরেন্দ্র  এলাকায় বারি সরিষা ১৮-এর উৎপাদন প্রযুক্তি”-এর ওপর মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

প্রধান অতিথি বলেন, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কতৃক সরিষার একটি জাত উদ্ভাবিত হয়েছে যার নামকরণ করা হয়েছে বারি সরিষা-১৮। এই জাতটিতে ইরুসিক এসিডের পরিমাণ নাই বললেই চলে। এই জাতটি ক্যানোলা গুণাগুণ সম্পন্ন। সরিষার তেলের বিকল্প হিসেবে উন্নত বিশ্বে ক্যানোলার তেল সরিষার বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়। বাংলাদেশের সুপারশপে এই তেল পাওয়া গেলেও এর মূল্য অধিকাংশের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। ক্যানোলার গুণাগুণ সম্পন্ন বারি সরিষা-১৮ এর বীজে তেলের পরিমাণ ৪০-৪২% এবং এই ভোজ্য তেল হিসেবে এই তেল একদম নিরাপদ।

অনুষ্ঠান গুলিতে কৃষি মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তরের প্রধান, প্রিন্ট ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সদস্য, জনপ্রতিনিধি, কৃষক-কৃষণী, কৃষি বিভাগের মাঠ পর্যায়ের উদ্ধর্তন কর্মকর্তাগণ সহ প্রায় ২০০ জন উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 1081 times!