যুক্তরাজ্যকে স্পেশাল ইকোনমিক জোন এবং হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগের আহবান বাংলাদেশের

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের সাথে যুক্তরাজ্যের ঐতিহাসিক সম্পর্ক। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কারামুক্ত হয়ে পাকিস্তান থেকে স্বাধীন বাংলাদেশে ফেরার পথে যুক্তরাজ্যে যাত্রাবিরতি করেন। যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র। যুক্তরাজ্যের সাথে বাংলাদেশের বাণিজ্যিক এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। বর্তমানে বাংলাদেশে দুইশতাধিক ব্রিটিশ কোম্পানি বাংলাদেশে প্রায় ২.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। অরেনকগুলোর কাজ এখন শেষ পর্যায়ে, এছাড়া ৩৩ টি হাই-টেক পার্ক এর কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। এগুলোতে বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য সবচেয়ে লাভজনক স্থান। বাংলাদেশে বিনিয়োগ এখন অনেক সহজ করা হয়েছে, বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বেশকিছু সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে এনার্জি, রেলওয়ে, টেলি-কমিউনিকেশন, ইনফরমেশন টেকনোরজি, ফার্মাসিটিকেল, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, সেবা, শিক্ষা এবং তৈরী পোশাক খাতে বিনিয়োগের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলাদেশের অনেক ছেলে-মেয়ে বৃটেনে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছেন। এ সকল বৃটিশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে থাকলে ছেলে-মেয়েরা কম খরচে উন্নত শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাবেন। বৃটিশ বিনিয়োগকারীগণ এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন। বিশ্ববাণিজ্য সংস্থার বিধিবিধান মেনে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী সোমবার (০৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সচিবালয়ে তাঁর অফিস কক্ষে ঢাকায় সফররত যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ বিষয় বাণিজ্য দূত রুশানারা আলী, এমপি’র (Rushanara Ali, MP) সাথে মতবিনিময়ের সময় এসব কথা বলেন।

সফররত বিষয় বাণিজ্য দূত রুশানারা আলী, এমপি বলেন, বৃটেন বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে চায়। এ ক্ষেত্রে জটিলতা দূর করলে বৃটিশ বিনিয়োগ বাংলাদেশে বাড়বে। বৃটিশ অনেক কোম্পানি বাংলাদেশে সুনামের সাথে কাজ করছে। সেবা ও শিক্ষা খাতে বিনিয়োগ করতে অনেক বৃটিশ বিনিয়োগকারী আগ্রহী। বাংলাদেশের স্পেশাল ইকোনমিক জোনবিদেশী বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বৃটেনের বিনিয়োগকারীগণ বাংলাদেশের বিভিন্ন সেক্টরে বিনিয়োগে আগ্রহী। উভয় দেশের বাণিজ্য বাড়লে কার্গো জাহাজ চলাচলের সুযোগ সৃষ্টি হবে। বাংলাদেশের উন্নয়ন এবং অগ্রযাত্রার প্রশংসা করে তিনি বলেন, মেড ইন বাংলাদেশ বৃটেনে জনপ্রিয় ব্যান্ড।

রুশানারা আলী, এমপি, বাংলাদেশের সেবা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিমান পরিবহণ খাতে বৃটিশ বিনিয়োগকারীদের  আগ্রহের কথা উল্লেখ করেন। তিনি মেধা সত্বের সুরক্ষা নিশ্চিত করার উপর বিশেষ গুরুত্ব দেন।

এসময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তাবৃন্দ  এবং ঢাকায় নিযুক্ত বৃটিশ হাই কমিশনার রোবার্ট চেটারর্সন ডিকসন ( Robert Chattertion Dickson)সহ ডেলিগেশনের সমস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 931 times!

Check Also

বিএআরআই বিজ্ঞানীদের নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণের সমাপনী অনুষ্ঠিত

গাজীপুর সংবাদদাতা: বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইংয়ের উদ্যোগে আজ মঙ্গলবার …