Saturday 4th of February 2023
Home / পরিবেশ ও জলবায়ু / খুলনা শহর রক্ষা বাঁধ, খাল ও পুকুর খননে বড় প্রকল্প কেসিসি’র

খুলনা শহর রক্ষা বাঁধ, খাল ও পুকুর খননে বড় প্রকল্প কেসিসি’র

Published at ডিসেম্বর ১, ২০২২

ফকির শহিদুল ইসলাম (খুলনা): খুলনা মহানগরীর ৪টি খাল খনন ও পাড় বাঁধাই, ২৩টি পুকুর খনন করে সংরক্ষণ, দুটি স্থানে শহর বাঁধ নির্মাণসহ নানান কাজে প্রায় ৪৯৭ কোটি টাকার বড় প্রকল্প পেয়েছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)। বুধবার (৩০ নভেম্বর) পরিকল্পনা কমিশনের প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় প্রকল্পটি অনুমোদন হয়েছে। ইতোমধ্যে এই প্রকল্পে ৩১২ কোটি টাকা অনুদান দিতে সম্মত হয়েছে জার্মান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (কেএফডব্লিউ)। এছাড়া কেসিসি ১ কোটি এবং বাকি ১৮৪ কোটি দেবে সরকার।

প্রকল্পের আওতায় নগরীর নবীনগর, বাস্তুহারা খাল, দেয়ানা চৌধুরী খাল এবং নিরালা খাল খনন ও পাড় বাঁধাই এবং সংযুক্ত সবগুলো ড্রেন পুননির্মাণ করা হবে। এছাড়া দৌলতপুর এলাকায় শহর রক্ষা বাঁধ নির্মাণ, মহেশ্বরপাশা শ্মশান ঘাট এলাকায় বাঁধ নির্মাণ, আলুতলায় ১০ গেটের স্থলে ১১ গেট স্লুইচগেট পুননির্মাণ, লবণচরা খালে পাম্প স্টেশন নির্মাণ করা হবে। একই প্রকল্পে নগরীর বিভিন্ন এলাকার ২৩টি পুকুর উন্নয়ন ও সংরক্ষণের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। বিনোদনের জন্য পার্ক নির্মাণ হবে রূপসা ফেরিঘাটের পাশে।

কেসিসির প্রধান পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবির উল জব্বার জানান, অনেক আগেই প্রকল্পের সমীক্ষার কাজ শেষ হয়। পরামর্শক প্রতিষ্ঠান প্রতিটি কাজের নকশা, ব্যয় প্রাক্কলন শেষ করেছে। জার্মান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সঙ্গে কেসিসির চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। পিইসির সভায় অনুমোদনের পর এখন শুধু একনেকে অনুমোদন বাকি রয়েছে। একনেকে অনুমোদনের পরই দরপত্র আহ্বান করে কাজ শুরু হবে।

কেসিসি থেকে জানা গেছে, ৫ বছর মেয়াদী এই প্রকল্পের নাম ‘জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব অভিযোজনে নগর উন্নয়ন (ফেজ-২)’। আগামী জানুয়ারি থেকে শুরু হয়ে প্রকল্পের কাজ চলবে ২০২৭ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় ঝুঁকিপূর্ণ জনসংখ্যার ক্ষতি হ্রাস করা এবং অভিযোজন ক্ষমতা বৃদ্ধিতে কাজ করাই প্রকল্পের মূল্য উদ্দেশ্য।

This post has already been read 198 times!