Sunday 25th of September 2022

Published at মার্চ ৭, ২০২২

সাভার সংবাদদাতা: বঙ্গবন্ধুর কাজের ধারাবাহিকতা রক্ষা করা গেলে আমরা ইতোমধ্যেই উন্নত দেশ হয়ে উঠতাম। স্বাধীনতার পরে বঙ্গবন্ধু যেভাবে যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশের হাল ধরেছেন, যেভাবে দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন তা সত্যিই ছিলো অনন্য। তিনি দেশের কৃষির উন্নয়নের অগ্রযাত্রা শুরু করেছিলেন। কারণ তিনি উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন যে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়ে উঠতে হবে, পুষ্টির চাহিদা পূরণে কাজ করতে হবে। বর্তমান সময়েও যেসব উন্নয়ন কার্যক্রম দৃশ্যমান, তার অধিকাংশই ছিলো বঙ্গবন্ধুর চিন্তার ফসল।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএলআরআই) কর্তৃক আয়োজিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিএলআরআই-এ অবস্থিত বঙ্গবন্ধু আলোকচিত্র গ্যালারি পরিদর্শনকালে ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন মহোদয় উক্ত মন্তব্য করেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, ১৯৭১ সালের ঐতিহাসিক সেই ৭ মার্চে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে ভাষণ দিয়েছিলেন তা ছিলো সারা বিশ্বের মধ্যে অন্যতম শ্রেষ্ঠ ভাষণ, যার স্বীকৃতি ইতোমধ্যেই ইউনেস্কো দিয়েছে। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর ৭ মার্চের ভাষণ দেশের সাধারণ মানুষের মধ্যে এমনই প্রভাব ফেলেছিলো যে মৃত্যু নিশ্চিত জেনেও হাজার হাজার বাঙালি যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো।

স্বাধীনতা যুদ্ধচলাকালীন নিজের পরিবারের অবস্থার কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছেন তাদের আত্মত্যাগ আমাদের উপলব্ধি করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের সত্যিকারের ইতিহাস চর্চা করতে হবে। এখনও যারা নানাভাবে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে বিভ্রান্তি ছড়ায়, উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রদান করে তাদের প্রতিহত করতে হবে, তাদের কথার প্রতিবাদ করতে হবে। আমরা গবেষকরা যে যেখানে আছি, আমাদের যতটুকু সক্ষমতা আছে তা নিয়ে গবেষণার মাধ্যমে দেশের পুষ্টি চাহিদা পূরণে ও দেশের উন্নতির জন্য কাজ করতে হবে।

এর আগে সকাল ৯.৩০ ঘটিকার সময় বিএলআরআই-এর প্রশাসনিক ভবনের সামনে স্থাপিত অস্থায়ী বেদিতে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপনের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইনস্টিটিউটের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও পরিচালক (গবেষণা) ড. নাসরিন সুলতানা, অতিরিক্ত পরিচালক জনাব মোঃ আজহারুল আমিন, বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানগণ, প্রকল্প পরিচালকগণসহ ইনস্টিটিউটের সকল স্তরের প্রায় শতাধিক বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ।

এরপর মহাপরিচালক মহোদয়ের নেতৃত্বে বিএলআরআই-এ অবস্থিত বঙ্গবন্ধু আলোকচিত্র গ্যালারি পরিদর্শন করেন বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ। দিনের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিলো বিএলআরআই-এর প্রধান ও আঞ্চলিক কার্যালয়সমূহে আলোকসজ্জাকরণ, বিএলআরআই-এর প্রধান কার্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে স্থাপিত ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ডে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ প্রচার, বিএলআরআই-এর সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও পোষ্যদের জন্য বঙ্গবন্ধু আলোকচিত্র গ্যালারি উন্মুক্তকরণ প্রভৃতি। এছাড়াও বিএলআরআই-এর আঞ্চলিক কেন্দ্রসমূহ সংশ্লিষ্ট জেলা ও উপজেলা কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করে নিজ নিজ কর্মসূচি পালন করে।

This post has already been read 891 times!