Friday 27th of May 2022
Home / শিক্ষাঙ্গন / ডায়ানা আনসারীর নিবন্ধ বিশ্ব শেক্সপিয়ার কংগ্রেসে প্রশংসিত

ডায়ানা আনসারীর নিবন্ধ বিশ্ব শেক্সপিয়ার কংগ্রেসে প্রশংসিত

Published at আগস্ট ৪, ২০২১

এগ্রিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: শেক্সপিয়ারের রাজনৈতিক দর্শন বিষয়ে বাংলাদেশ থেকে প্রথমবারেরমত “দি ইভ্যালুয়েশন অব পলিটিক্যাল শেক্সপিয়ার ইন বাংলাদেশ” শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আশা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডায়ানা আনসারী। প্যানেল আলোচনা ছাড়াও সম্মেলনে পরবর্তীতে নিবন্ধটি প্রশংসিত হয়েছে। ডায়ানা আনসারী বাংলাদেশ কৃষি সেক্টরের অন্যতম বৃহৎ কোম্পানি এসিআই এগ্রিবিজনেস –এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এফএইচ আনসারীর স্ত্রী।

বাংলাদেশের ১৯৮৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত রাজনৈতিক পঠভূমি বিশ্লেষণ করেছেন গবেষক ডায়ানা আনসারী। বর্তমানে তিনি মালায়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একই বিষয়ের ওপর পিএইচডি করছেন। তার গবেষনায় মূলত শেক্সপিয়ারের তিনটি নাটক নিয়ে বাংলাদেশের বিখ্যাত নাট্যকারদের রচিত নাটকের তথ্য বিশ্লেষণ করেছেন।

জানা গেছে, গত মাসের ১৮ জুলাই থেকে ২৪ জুলাই অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে এশিয়ার তিনটি দেশ থেকে প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। নির্বাচিত এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে নির্দিষ্ট রাজনৈতিক মুহূর্তগুলো কিভাবে শেক্সপিয়ারের নাটকে এসেছে তা পুন:মূল্যায়ন করা হয়েছে। জাপানের কেইজাই ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক মিনামি রিউতার সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে মালায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কোক সুমেই “শেক্সপিয়ার এবং মালেয়শিয়ার সাধারন নির্বাচন” এবং দক্ষিণ কোরিয়ার ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব আর্টসের অধ্যাপক ড. চোই ইয়াং জু “পলিটিক্যাল হ্যামলেটস ইন কোরিয়া ফ্রম দি ১৯৮০ টিল ২০০০” শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। দক্ষিণ কোরিয়ার ১৯৮০ থেকে ২০০০ সাল এবং মালেয়শিয়ার চলতি দশকের রাজনৈতিক পটভূমি বিশ্লেষণ করেছেন গবেষকগণ।

গবেষণার ক্ষেত্রে আন্তঃসাংস্কৃতিক নাটক প্রযোজনার উপর মনোযোগ দেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে ১৯৮২ সালে ক্রিস্টোফর স্যান্ডফোর্ড পরিচালিত ম্যাকবেথ ও ১৯৯২ সালের গনো নায়ক, আতাউর রহমানের হ্যামলেট (২০১৭) যা ১৫৯৯ সালের জুলিয়াস সিজার অবলম্বনে করা হয়েছে। এছাড়া ১৯৯১ সালে অ্যালি যাকের পরিচালিত দর্পন যা ১৬০০ সালের হ্যামলেট অবলম্বনে নির্মিত এবং ২০১৮ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইশরাফিল শাহীন পরিচালিত ম্যাকবেথ।

উল্লেখ্য, প্রতি চার বছর পর ওয়ার্ল্ড শেক্সপিয়ার কংগ্রেসে (ডব্লিউএসসি) আয়োজন করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। চলতি বছর ১১তম এ সম্মেলনের আয়োজন করে সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

This post has already been read 708 times!