Saturday 4th of February 2023
Home / অন্যান্য / মওদুদকে ফের ইভিল জিনিয়াস বললেন কৃষি মন্ত্রী

মওদুদকে ফের ইভিল জিনিয়াস বললেন কৃষি মন্ত্রী

Published at জানুয়ারি ২, ২০২০

টাঙ্গাইল : সাবেক আইন মন্ত্রী এবং বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমেদকে ফের ইভিল জিনিয়াস বললেন কৃষি মন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এম.পি। বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) টাঙ্গাইল জেলার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কোর্ট প্রাঁঙ্গণে অনুষ্ঠিত ‘বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ’ টাঙ্গাইল জেলা শাখার “ত্রি- বার্ষিক সম্মেলনে” মওদুদ সম্পর্কে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কৃষি মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় এদেশের মানুষের ওপর পৃথিবীর বর্বরচিত নির্যাতন করে পাকিস্তানের সেনারা ও এদেশে তাদের অনুসারিরা। বিএনপি ক্ষমতায় এসে তাদের বিচার করে নি। ইভিল জিনিয়াস মওদুদ আহমেদ বলেছে বিচারপতি সংকটের জন্য বিচার করা যাচ্ছে না। কেউই আইনের উর্ধে নয়, বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করেছে এবং জাতির পিতার খুনিদেরও বিচার সম্পন্ন হয়েছে।

তিনি বলেন, আইনজীবীরা সমাজের বিবেক,দেশ ও জাতির স্বার্থে আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় দেশরত্ম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ করে একই ছায়াতলে এনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ গঠন করেন। আইনজীবীদের দায়িত্ব অনেক বেশী তাই আপনাদের বিবেক দ্বারা পরিচালিত হতে হবে। একটা আদর্শ হাজারে পরিনত হয়।

তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দৃঢ়তা,সততা ও নিষ্ঠার সাথে সকল ষড়যন্ত্র  মোকাবেলা করে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করছেন। খাদ্য ঘাটতির দেশ আজ খাদ্য রপ্তানীকারক দেশ হয়েছে। শিক্ষা,স্বাস্থ্যসহ অর্থনীতির সকল সুচকে বাংলাদেশ বিস্ময়কর সাফল্য অর্জন করেছে। সাফল্যের এই ধারা অব্যাহত রাখতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশ বিরোধীদের প্রতিহত করে উন্নত বাংলাদেশ বির্ণিমানে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক অ্যাড. মো. নুরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে বিশেষ হিসেবে বক্তব্য করেন সংসদ সদস্য অ্যাড. জোয়াহেরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক। আরও বক্তব্য করেন জেলা বারের সভাপতি অ্যাড. রফিকুল ইসলাম, সম্মিলিত আইনজীবী পরিষদের আহবায়ক কাজী নুরুল ইসলাম,সংগঠনের কেন্দ্রীয় সদস্য ব্যারিস্টার শফিক ও অ্যাড. মোকলেসুর রহমান বাদল।

This post has already been read 2243 times!