Saturday 4th of February 2023
Home / অন্যান্য / বাকৃবি’র শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

বাকৃবি’র শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

Published at মার্চ ১, ২০১৮

বাকৃবি’র সংবাদদাতা: বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) পশু প্রজনন ও কৌলিবিজ্ঞান বিভাগের সিনিয়র প্রফেসর, পটুয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের (কেবি কলেজ) পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি, ড. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেনকে প্রাণনাশের হুমকি ও বাসায় সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

গতকাল ২৮ ফেব্রুয়ারি-২০১৮, বৃহষ্পতিবার বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন বাকৃবি’র শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ।

শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আমিরুল ইসলামের সঞ্চালনায় ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচিতে বাকৃবি’র প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. জসিমউদ্দিন খান, ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. সচ্চিদানন্দ দাস চৌধুরী, গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরামের সভাপতি প্রফেসর ড. মো. আবুল হোসেন, প্রফেসর ড. শহীদুর রহমান খান, প্রফেসর ড. কাজী শাহনারা আহমেদ, প্রফেসর ড. এমদাদুল হক চৌধুরী, প্রফেসর ড. এম.এ.এম. ইয়াহিয়া খন্দকার, প্রফেসর ড. মো. আলমগীর হোসেনসহ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বাকৃবি’র প্রাতিষ্ঠানিক কমান্ডের সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও অন্যান্য ছাত্রনেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা শিক্ষকের উপর হামলা ও প্রাণনাশের হুমকির তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং এই সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত সকলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

মানববন্ধনে প্রফেসর ড. সৈয়দ সাখাওয়াত হোসেন বলেন, অন্যায়ের সাথে আপোস না করায় আজ আমার উপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে, আমাকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে। পথভ্রষ্ট যুবকরা ছাত্রসংগঠনের ব্যানারে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে ধ্বংস করতে চাইছে। এসময় ড. সাখাওয়াত অন্যায়ের প্রতিবাদ করে পাশে এসে দাঁড়ানোর জন্য বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. এ. এস. মাহফুজুল বারি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যের উপরে যে কোন অন্যায়, অবিচার বরদাস্ত করা হবে না। অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং ন্যায় সংগত দাবি আদায়ে সবসময় শিক্ষক সমাজের পাশে থাকবে শিক্ষক সমিতি।

This post has already been read 2043 times!