Sunday 7th of August 2022
Home / পোলট্রি / ঢাকায় Asia Nutrition Forum অনুষ্ঠিত

ঢাকায় Asia Nutrition Forum অনুষ্ঠিত

Published at অক্টোবর ২৪, ২০১৭

aaaনিজস্ব প্রতিবেদক : বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৬০ ভাগই বাস করে এশিয়া প্যাসিফিক (৪.৫ বিলিয়ন) অঞ্চলে এবং ২০৫০ সন নাগাদ এর সংখ্যা দাড়াবে প্রায় ৫ বিলিয়ন। এই বিশাল জনসংখ্যার প্রোটিনের চাহিদা পূরন এখন বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ রুপে দাড়িয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের চাহিদার তুলনায় বাংলাদেশে মাথাপিছু প্রোটিন গ্রহণের পরিমান এখনও অনেক পিছিয়ে রয়েছে। অন্যদিকে স্বাস্থ্যসম্মত জাতি গঠনে প্রোটিনের বিকল্প নেই। ভোক্তাদের প্রোটিন চাহিদা পূরণের তাগিদে বাড়ছে এ সংক্রান্ত শিল্প ও তাদের কর্মকাণ্ড।
22555213_2048626795417863_7538933311955558025_n
মঙ্গলবার ঢাকার লা মেরিডিয়ান ঢাকা হোটেলে Biomin এবং Renata Limited এর যৌথ উদ্যোগে “Asia Nutrition Forum” শীর্ষক এক বৈজ্ঞানিক সেমিনারের আয়োজন করা হয় যার মূল উদ্দেশ্যই ছিল পুষ্টি এবং বিশেষ করে প্রোটিন সম্পর্কে জ্ঞানকে আরো বিস্তৃত করা। সেমিনারের মূল থিম ছিল “DRIVING THE ASIAN PROTEIN ECONOMY”. সেমিনারে অস্ট্রিয়া ভিত্তিক স্বনামধণ্য প্রতিষ্ঠান বায়োমিন এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিজ্ঞানী ছাড়াও দেশের পোল্ট্রি শিল্পের সাথে জড়িত বিভিন্ন উদ্যোক্তা, দেশী-বিদেশী স্বনামধন্য বিশেষজ্ঞ ছাড়াও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
22730180_2048626702084539_768007408882151849_n
সেমিনারের আয়োজন ও লক্ষ্য সম্পর্কে রেনাটা লিমিটেড (এনিমেল হেলথ্ ডিভিশন) -এর প্রধান মো. সিরাজুল হক বলেন, আমাদের আজকের আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য হলো প্রোটিন সম্পর্কে নলেজ শেয়ারিং, বায়োমিন কিংবা রেনাটা’র কোন পণ্য নিয়ে আলোচনা নয়। বায়োমিন ২০০৮ সন থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এ ধরনের বৈজ্ঞানিক সেমিনার করে আসছে। কিন্তু দেশের সকল উদ্যোক্তা কিংবা কর্মকর্তাদের পক্ষে সেখানে যাওয়া সম্ভব হয়না। তাই ২০১৫ সন থেকে বায়োমিন এর সাথে যৌথভাবে সেমিনারটি বাংলাদেশে আয়োজন করে আসছি। আমরা আশা করছি এখান থেকে অনেক কিছু জানতে পারবো, শিখতে পারবো যা দেশের পোলট্রি শিল্পের জন্য ইতিবাচক সুফল বয়ে আনবে।

মি. হক আরো বলেন, আগামী দিনের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ এন্টিবায়োটিক। এন্টিবায়োটিকের বিকল্প প্রো-বায়োটিকের বিষয়েও এখানে আলোচনা করা হচ্ছে। “Asia Nutrition Forum- Biomin”-প্রতি দুই বছর অন্তর বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের প্রাণী গবেষক, পুষ্টিবিদ, ভেটেরিনারিয়ান, ফিড ইন্ডাষ্ট্রির সঙ্গে জড়িত বিশেষজ্ঞগণ সমবেত হয়ে তথ্যাদি আদান-প্রদান, অভিজ্ঞতা এবং বাস্তবচিত্র তুলে ধরেন। ফলে এ ধরনের আয়োজন দেশের পোলট্রি শিল্পকে আরো সমৃদ্ধ করবে।

সেমিনারের শুরুতে বায়োমিন এশিয়া প্যাসিফিক-এর রিজিওনাল টেকনিক্যাল ডিরেক্টর ডা. টান সিওয়ং লিম স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে সেমিনারে আগত অতিথিদের শুভেচ্ছা জানান। এ সময় তিনি Key Note Speker এবং অন্যান্য প্রেজেন্টশন উপস্থাপনকারীদের সাথে আগত অতিথিদের পরিচয় করে দেন এবং বায়োমিন সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

সেমিনারে “Livestock rearing without antimicrobial growth promoters is perfectly possible using anti-inflammatory feed compounds and feeding strategies” শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন Dr. Theo A. Niewold, PhD, Professor, Nutrition and Health, University of Leuven, Belgium. প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে তিনি মাইক্রোবিয়াল গ্রোথ প্রোমোটর ছাড়াই কিভাবে সাশ্রয়ী মূল্যে এবং টেকসই ব্যবস্থাপনায় স্বাস্থ্যসম্মত প্রোটিন সরবরাহ করা যায়।

“Probiotics as alternatives to antibiotics for treating lameness due to bacterial infections in broilers” শীর্ষক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন Dr. Robert F. Wideman, Jr., PhD, Emeritus Professor, Center of Excellence for Poultry Science, University of Arkansas, Fayetteville AR, USA. এন্টিবায়োটিক ছাড়াই Lameness কিভাবে প্রতিরোধ করা সম্ভব এটা তিনি বিশদভাবে আগত অতিথিদের সামনে তুলে ধরেন।

“Health secrets of the gut” শীর্ষক প্রেজেন্টেশনে Dr. Daniel Petri, PhD, Global Product Line Manager Microbials, BIOMIN Holding GmbH. অন্ত্রনালীর Risk factor এবং Challenge তুলে ধরেন অত্যন্ত সাবলীলভাবে। পাশাপাশি Gut health কিভাবে সুরক্ষিত রাখা যায় -এ ব্যাপারে সুস্পষ্ট ধারনা দেন।

“Stressors to the immune system of poultry” শীর্ষক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফ্যাকাল্টি অব ভেটেরিনারি সায়েন্স এর প্যাথলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল ইসলাম। এ সময় তিনি পোলট্রির বিভিন্ন Stressor সম্পর্কে ধারনা দেওয়ার পাশাপাশি Stressor হতে কিভাবে পোল্ট্রি ইমিউনিটি ঠিক রাখা যায় তার কৌশল ব্যাখ্যা করেন।

সেমিনারে “A journey towards safe poultry production: An outlook of Bangladesh” শীর্ষক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন ওয়ার্ল্ড পোলট্রি সায়েন্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ – এর সভাপতি এবং নারিশ পোলট্রি অ্যান্ড হ্যাচারি লিমিটেড -এর পরিচালক শামসুল আরেফীন খালেদ। এ সময় তিনি পোলট্রি সমস্যা, সম্ভাবনা এবং করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

This post has already been read 2240 times!