Monday 28th of November 2022
Home / অন্যান্য / বর্ণাঢ্য আয়োজনে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন

বর্ণাঢ্য আয়োজনে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন

Published at জুলাই ১৫, ২০১৭

20134565_1461487370598855_113661729_nশেকৃবি সংবাদদাতা : জাঁকজমকপূর্ণভাবে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭তম বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালিত হয়েছে। শনিবার ক্যাম্পাস জুড়ে নানা আয়োজনে উৎসবমুখর পরিবেশে দিবসটি উদযাপন করা হয়। দিবস উপলক্ষ্যে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ। এরপর উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সংবলিত বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে এবং কেক কেটে অনুষ্ঠান শুরু করেন।

20117486_1461487497265509_1020712001_nউপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদ বলেন, উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে নতুন প্রজন্মকে কৃষিতে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বদ্ধপরিকর। দেশের কৃষি উন্নয়নে এ প্রতিষ্ঠানের গ্র্যাজুয়েটগণ যে উজ্জ্বল স্বাক্ষর রেখেছেন এবং আজও রেখে যাচ্ছেন, আজকের দিনে তা খতিয়ে দেখা দরকার। কৃষি উন্নয়নের এমন কোন ক্ষেত্র নেই যেখানে অগ্রণী নেতৃত্বে ভূমিকা রাখেননি এখানকার 20067577_1461487743932151_1002906458_nপাশ করা কৃষিবিদগণ। রাজনীতি থেকে শুরু করে সর্বক্ষেত্রে বিচরণ করছেন গ্রাজুয়েটরা। পরিবর্তনশীল জলবায়ু, জনসংখ্যা বৃদ্ধি, প্রতিযোগিতামূলক অর্থনীতিতে কৃষি শিক্ষা, গবেষণা ও প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে সরকারের কৃষিবান্ধব বহুমূখী কর্মসূচি কাজ করছে এই বিশ্ববিদ্যালয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. মিজানুর রহমান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. সেকেন্দার আলী, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল হক বেগসহ প্রাক্তন ও বর্তমান ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারি উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে একাডেমিক ভবন থেকে ক্যাম্পাসে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তা ঘুরে প্রশাসনিক ভবনে এসে শেষ হয়।

বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুনসহ বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা। এর আগে সকাল ৯টা থেকেই আবাসিক হলগুলোর শিক্ষার্থীরা ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে, বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে, ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে একাডেমিক ভবনের সামনে হাজির হতে থাকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের এ গৌরবের দিনের সাক্ষী হতে অনুষ্ঠানে যোগ দেন সাবেক শিক্ষার্থীরাও। দিনটি বরণ করতে বিশ্ববিদ্যালয় সাজে এক রঙিন সাজে। সর্বত্রই চোখে পড়ে লাল-নীল মরিচ বাতির ঝলক। বিভিন্ন স্থানে টাঙানো হয়েছে দৃষ্টিনন্দন ব্যানার ও ফেস্টুন। সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা সভা, পুরুস্কার বিতরণী ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন আহাম্মদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি.।

This post has already been read 2659 times!