১৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩ রজব ১৪৪২
শিরোনাম :

নিরাপদ ও পুষ্টিসম্পন্ন খাদ্য উৎপাদনে সচেতন হতে হবে

Published at জানুয়ারি ২১, ২০২১

আশিষ তরফদার (পাবনা) : ফসল উৎপাদন বৃদ্ধিতে নতুন নতুন আধুনিক প্রযুক্তির বিস্তার  ঘটাতে হবে। কৃষিতে উৎপাদন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে, শুধু উৎপাদনে সীমাবদ্ধ নয়, নিরাপদ ও পুষ্টিসম্পন্ন খাদ্য উৎপাদনে সচেতন হতে হবে, তাই মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তাদের এ ধরনের প্রশিক্ষণের কোন বিকল্প নেই বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

পাবনা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে  এনএটিপি ফেজ-২  এর আওতায় প্রকল্পভূক্ত উপজেলার  উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তাগণের ২ দিনব্যাপী (২০-২১ জানুয়ারি) প্রশিক্ষণ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো.আব্দুল কাদের এসব কথা বলেন। পাবনার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো: সামছুল আলম এতে সভাপতিত্ব করেন।

দুই দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের মূল বিষয় ছিল এনএটিপি প্রকল্প পরিচিতি এবং বানিজ্যিক কৃষি, ফলন পার্থক্য কমানো প্রযুক্তি এবং এডব্লিউডি কৌশল,ফুড সেফটি ও ফুড সেফটি ঝুকি সমূহ, নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে করনীয়, রাসায়নিক বালাইনাশকের বৈশিষ্ট্য ও ক্ষতিকর দিকসমূহ , জৈবিক বালাইনাশক ও নিরাপদ ফসল উৎপাদন, মাটির স্বাস্থ্য,ভার্মি কম্পোস্ট, ট্রাইক্রো কম্পোস্ট, কুইক কম্পোস্ট, ফসল পরিপক্কতার নির্দেশক সমূহ এবং সংগ্রহ ও সংগ্রহোত্তর ব্যবস্থাপনা ও প্রযুক্তির ধাপ সমূহ, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণ ও কৃষিতে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ও অভিযোজন  সর্ম্পকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।

প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসেবে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন, পাবনা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ আব্দুল কাদের, একই দপ্তরের জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার কৃষিবিদ মো. লোকমান হোসেন, অতি: উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো: সামছুল আলম, পাবনা কৃষি তথ্য সার্ভিসের আঞ্চলিক কৃষি তথ্য ও যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ কৃষিবিদ প্রশান্ত কুমার সরকার, পাবনা ডিএই কৃষি প্রকৌশলী কৃষিবিদ মাসহুরা মল্লিক।

প্রশিক্ষণে জেলার বিভিন্ন উপজেলার ৩০ জন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন।

This post has already been read 358 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN