১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ সফর ১৪৪২
শিরোনাম :

বন্যার ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পাবনায় রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে আমন ধানের চারা রোপণ

Published at আগস্ট ৪, ২০২০

আশিষ তরফদার  (পাবনা) : কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে পাবনা সদর উপজেলায় প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে খরিফ – ২ মৌসুমে বন্যার ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে আমন ধানের চারা রোপণ কার্যক্রম জহিরপুর গ্রামে (৪ আগস্ট) অনুষ্ঠিত হয়।

রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে আমন ধানের চারা রোপণ আনুষ্ঠানে উপজেলার কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. হাসান রশিদ হোসাইনীর  সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবনাস্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. আজাহার আলী , বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবনাস্থ কৃষি তথ্য সার্ভিসের আঞ্চলিক কৃষি তথ্য ও  যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ কৃষিবিদ প্রশান্ত কুমার সরকার, সংশ্লিষ্ট উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের কর্মকর্তাবৃন্দ।

প্রধান অতিথি কৃষিবিদ মো. আজহার আলী বলেন, করোনা দূর্যোগ ও বন্যার মূহূর্তে শ্রমিক সংকটের কারণে হতাশগ্রস্থ না হয়ে প্রাকৃতিক দূর্যোগ থেকে ফসলের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া এবং স্বল্প খরচে ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে আমন ধানের চারা রোপন করা হয়। ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ১বিঘা জমি চারা রোপন করতে সময় লাগে ১ঘন্টা এবং খরচ হয় মাএ ৫০০ টাকা । যেখানে শ্রমিক দিয়ে রোপন করলে খরচ হয় ২০০০-২৫০০ টাকা।  তাই ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে রোপনে যেমন সময় সাশ্রয় হয় অন্যদিকে কৃষকের উৎপাদন খরচ কমানো যায় কৃষক  লাভজনক হয়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বক্তাগণ বলেন কৃষকের উন্নয়নের জন্য সরকার প্রণোদনা সহায়তা বিতরণ, সুলভ মূল্যে কৃষি উপকরণ প্রদানসহ নানাবিধ সুবিধা প্রদান করে যাচ্ছে। তাছাড়া বর্তমান সরকারের সময়োচিত পদক্ষেপের জন্য কৃষকগন চাষাবাদে অনুপ্রানিত হচ্ছে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে আদর্শ কৃষক মো. আবুল হাসেমের জমিতে  ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে আমন ধানের চারা রোপন করা হয়। সময় ও অর্থ কম লাগায়  উপস্থিত কৃষকগন এভাবে চারা রোপনে  আগ্রহ প্রকাশ করেন।

This post has already been read 332 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN