৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ২৩ জিলহজ্জ ১৪৪০
শিরোনাম :

পোলট্রি ও মাছের খাদ্যে পাটের বস্তা বাধ্যতামূলক: না মানলে জেল-জরিমানা

Published at আগস্ট ১৩, ২০১৮

ডেস্ক রিপোর্ট: হাঁস-মুরগি ও মাছের খাদ্য মোড়কে পাটের বস্তা ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে সরকার। এখন থেকে এ দু’টি পণ্যসহ মোট ১৯টি পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহারের জন্য নির্ধারিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়। গত ৬ আগস্ট জারি করা এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন রবিবার (১২ আগস্ট) প্রকাশ করা হয়েছে।

‘পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন, ২০১০’ এর ধারা ২২ এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সরকার পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার বিধিমালা, ২০১৩ এর অধিকতর সংশোধন করে পোল্ট্রি ও ফিস ফিড সংরক্ষণ ও পরিবহনে পাটের বস্তার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে।

‘পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন, ২০১০ এর ধারা-১৪ অনুযায়ী পাটের মোড়ক ব্যবহার না করলে অনূর্ধ্ব এক বছর কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে। এ অপরাধ পুনঃসংগঠিত হলে সর্বোচ্চ দণ্ডের দ্বিগুণ দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

এর আগে আইন অনুযায়ী ছয়টি পণ্য (ধান, চাল, গম, ভুট্টা, সার ও চিনি) পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহারের জন্য নির্ধারিত হয়েছে। পরবর্তীতে গত বছরের ২১ জানুয়ারি আরো ১১টি (মরিচ, হলুদ, পেঁয়াজ, আদা, রসুন, ডাল, ধনিয়া, আলু, আটা, ময়দা, তুষ-খুদ-কুড়া) পণ্যসহ মোট ১৭টি পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার নির্ধারিত করে।

আইনটি সম্পূর্ণরূপে বাস্তবায়িত হলে প্রতিবছর ১০০ কোটিরও বেশি পাটের বস্তার চাহিদা সৃষ্টি হবে বলে আশা প্রকাশ করেছে মন্ত্রণালয়।

This post has already been read 1257 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN