৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ১৮ জিলহজ্জ ১৪৪০
শিরোনাম :

নির্বাচনী ইশতেহারে পোল্ট্রি শিল্পের উন্নয়নে ঘোষণা থাকতে হবে -সাবেক উপাচার্য, বিএসএমএমইউ

Published at ডিসেম্বর ৯, ২০১৮

শনিবার (৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর অভিজাত এক হোটেলে “প্রোটিন ফর অল” শীর্ষক সেমিনারে বক্তব্য রাখছেন (বা থেকে – উপরের ইনসেট ছবি) বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিলের (বিপিআইসিসি) সভাপতি মসিউর রহমান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বি.এস.এম.এম.ইউ) সাবেক উপাচার্য ডা. কামরুল হাসান খান, বারডেম হাসপাতালের পুষ্টি বিভাগের প্রধান পুষ্টিবিদ শামসুন্নাহার নাহিদ (মহুয়া), জনপ্রিয় রন্ধন শিল্পী নাহিদ ওসমান এবং ইউএস সয়াবিন এক্সপোর্ট কাউন্সিলের (ইউ.এস.এস.ই.সি) কনসালট্যান্ট মি. পাওয়ান কুমার।

ঢাকা: ডিম ও মুরগির মাংস উৎপাদনে একটা বিপ্লব ঘটিয়েছে বাংলাদেশের পোল্ট্রি শিল্প। প্রায় ৩০ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ এবং ৬০ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করেছে। বর্তমান এবং আগামীতে দেশের আপামর মানুষের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা পূরণে পোল্ট্রি শিল্প অগ্রণী ভূমিকা রাখবে অথচ কৃষিভিত্তিক এ খাতটি নানামুখী অবহেলার শিকার। তাই এ শিল্পের উন্নয়নে মনোযোগী হতে হবে এবং আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারি রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনী ইশতেহারে পোল্ট্রি শিল্পের উন্নয়ন সম্পর্কে সুস্পষ্ট ঘোষণা থাকতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বি.এস.এম.এম.ইউ) সাবেক উপাচার্য ডা. কামরুল হাসান খান। শনিবার (৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত “প্রোটিন ফর অল” শীর্ষক সেমিনারে তিনি রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি এ আহ্বান জানান। বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিল (বিপিআইসিসি) এবং ইউনাইটেড স্টেটস্ সয়াবিন এক্সপোর্ট কাউন্সিল (ইউ.এস.এস.ই.সি) যৌথভাবে এ সেমিনারের আয়োজন করে। এতে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন বিপিআইসিসি’র উপদেষ্টা শ্যামল কান্তি ঘোষ।

ডা. কামরুল হাসান বলেন, প্রতিটি মানুষের জন্য, বিশেষ করে শিশুদের জন্য ডিম একটি আদর্শ খাদ্য। তিনি বলেন- ভ্রুণ থেকে শুরু করে জন্মগ্রহণের পর ২১ বছর বয়স পর্যন্ত সময় পেশী ও হাড়ের গঠন, ক্ষয়পূরণ, বৃদ্ধি সাধন ও মেধার বিকাশ ঘটতে থাকে। আর এ সময়ে প্রাণিজ আমিষ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাছাড়া প্রয়োজনীয় শক্তি অর্জনের জন্যও প্রোটিনের প্রয়োজন অপরিহার্য। ডা. কামরুল বলেন- সুস্থ-সবল থাকতে হলে সুষম খাবার খেতে হবে এবং নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে। অনেকে মনে করেন মাছের তেলে ক্ষতি নেই কিন্তু এ ধারনা সঠিক নয়। চিতল মাছে খাসির মাংসের চেয়েও বেশি ফ্যাট থাকে।

বারডেম হাসপাতালের পুষ্টি বিভাগের প্রধান পুষ্টিবিদ শামসুন্নাহার নাহিদ (মহুয়া) বলেন, মানের বিচারে উদ্ভিজ্জ প্রোটিনের চেয়ে প্রাণিজ প্রোটিন ভাল কারন প্রাণিজ প্রোটিনে অধিক পরিমানে অ্যামিনো এসিড থাকে। ডিম কে “প্রথম শ্রেণীর প্রোটিন” হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন- সব বয়সের মানুষের জন্য ডিম দরকারি, এমনকি কার্ডিয়াক রোগির জন্যও স্বাস্থ্যগত অবস্থা বুঝে ডিম দেয়া হয়ে থাকে। শিশুর সঠিক ও দ্রুত বৃদ্ধির জন্য এবং প্রি-স্কুলের বাচ্চাদের জন্য উন্নতমানের প্রোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য দেয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন- মুরগির বুকের মাংসে চর্বি কম থাকে। চামড়া ফেলে দিয়ে চিকেন উইংস খাওয়ার পরামর্শ দেন মহুয়া। তিনি বলেন- শর্করা জাতীয় খাদ্য বেশি খেলে তা শরীরে জমে থাকে কিন্তু প্রোটিন থাকেনা। তাই প্রোটিন খেলে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা নেই।

বাংলাদেশ পোল্ট্রি ইন্ডাষ্ট্রিজ সেন্ট্রাল কাউন্সিলের (বিপিআইসিসি) সভাপতি  মসিউর রহমান বলেন, প্রোটিন ছাড়া মানুষের শরীর স্বাভাবিক নিয়মে কাজ করতে পারেনা। তাই আমাদের প্রোটিন গ্রহণ করতেই হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী মানবদেহের শক্তির ১০ থেকে ১৫ শতাংশ আসা উচিত আমিষ জাতীয় খাদ্য থেকে। আর এই আমিষের ২০ শতাংশ আসতে হবে প্রাণিজ আমিষ থেকে। উন্নত বিশ্বের অনেক দেশেই এই আমিষের ৫০ শতাংশ আসে প্রাণিজ আমিষ থেকে। জনাব মসিউর বলেন- আমাদের দেশে প্রোটিন ইনটেকের পরিমান অনেক কম এবং প্রাণিজ প্রোটিনের ইনটেক আরও কম। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন- বাংলাদেশে বর্তমানে অত্যন্ত উন্নতমানের পোল্ট্রি ও ফিস ফিড উৎপাদিত হচ্ছে। অপর এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন- ফেসবুকে নকল ডিম নিয়ে যে প্রচারনা তা ভিত্তিহীন। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত কোন নকল ডিমের সন্ধান পাওয়া যায়নি। যিনি নকল ডিমের সন্ধান দিতে পারবেন তাঁকে পুরস্কৃত করা হবে।

ইউএস সয়াবিন এক্সপোর্ট কাউন্সিলের (ইউ.এস.এস.ই.সি) কনসালট্যান্ট মি. পাওয়ান কুমার বলেন, পশ্চিম ইউরোপের দেশ মোনাকোর মানুষের গড় আয়ু সবচেয়ে বেশি। নেদারল্যান্ডসের মানুষেরা যথেষ্ঠ লম্বা হয়। চীনের একজন মানুষ ৭৫ বছর বয়সেও অনেক বেশি কাজ করতে পারেন- কারন তাঁরা পর্যাপ্ত প্রোটিন গ্রহণ করেন। অন্যদিকে ভারতের প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ প্রোটিন ঘাটতিতে ভুগছেন বলে জানান মি. পাওয়ান। এক পরিসংখ্যান মতে- সেদেশের ৭৩ শতাংশ শহুরে ধনী মানুষ এবং ৬২ শতাংশ গর্ভবতী নারী প্রোটিন ঘাটতিতে ভুগছেন। তিনি বলেন- প্রোটিনের অভাব হলে মানুষ অকালেই বার্ধক্যে আক্রান্ত হয়। বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে এখনও প্রোটিন ঘাটতি অনেক বেশি। শুধুমাত্র চালের উৎপাদন বাড়িয়ে এ ঘাটতি পূরণ করা সম্ভব নয়। এমনকি পাশ্ববর্তী দেশ থেকে প্রোটিন আমদানি করেও এ ঘাটতি পূরণ প্রায় অসম্ভব কারণ বাংলাদেশের পাশ্ববর্তী পাঁচটি দেশেও প্রোটিনের যথেষ্ঠ ঘাটতি রয়েছে।

টেলিভিশনে প্রচারিত রান্না বিষয়ক অনুষ্ঠানের জনপ্রিয় রন্ধন শিল্পী নাহিদ ওসমান বলেন, সকালের নাস্তায় প্রতিদিন একটি ডিম থাকা উচিত। যে সকল শিশু সকালে নাস্তা না খেয়ে স্কুলে যায় তাদের পারফরম্যান্স, যারা নিয়মিত নাস্তা করে যায় তাদের চেয়ে খারাপ। নাহিদ বলেন- কম তেল-মসলা দিয়েও পুষ্টিকর খাবার রান্না করা যায় এবং মুরগির মাংস দিয়ে তৈরিকৃত নানান পদের সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর খাবার তরুণদের মাঝে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

সেমিনারে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন ওয়ার্ল্ড’স পোল্ট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন- বাংলাদেশ শাখার সভাপতি শামসুল আরেফিন খালেদ (অঞ্জন), এসিআই লিমিটেড -এর এগ্রি বিজনেস বিভাগের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও ড. এফ.এইচ আনসারি এবং বিপিআইসিসি’র সদস্যভুক্ত সংগঠন ব্রিডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, ফিড ইন্ডাস্ট্রিজ অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ, ওয়ার্ল্ড পোল্ট্রি সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন- বাংলাদেশ শাখা, এনিমেল হেলথ কোম্পানীজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আহকাব) এবং বাংলাদেশ এগ্রো ফিড ইনগ্রিডিয়েন্টস ইম্পোর্টার্স এন্ড  ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাফিটা) -এর প্রতিনিধিগণ। এছাড়াও ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি, তিতুমীর কলেজ ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী এবং মহাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক; পোল্ট্রি ও কৃষি বিষয়ক ম্যাগাজিন ও অনলাইনের সংবাদকর্মীসহ প্রায় ১২০ জন অংশগ্রহণকারি এ সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 350 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN