৫ কার্তিক ১৪২৭, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ রবিউল-আউয়াল ১৪৪২
শিরোনাম :

টেকনো ড্রাগস’এর বিপুল পরিমাণ অবৈধ ওষুধ ধ্বংস ও অর্থদন্ড

Published at সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২০

এগ্রিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: দেশের পোলট্রি, মৎস্য ও প্রাণি স্বাস্থ্যসেবা খাতের কোম্পানি টেকনো ড্রাগস লিমিটেডকে অবৈধ ওষুধ উৎপাদন ও বাজারজাতকরণের দায়ে সাড়ে ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড এবং প্রায় ত্রিশ লাখ টাকা মূল্যের অবৈধ ওষুধ ধ্বংস করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।। মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) নরসিংদি জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন এর  নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রইছ আল-রেজুয়ান নেতৃত্বে শিবপুর উপজেলার বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় টেকনো ড্রাগস লিমিটেড কারখানায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। ভ্রাম্যমান আদালত এ সময় কোম্পানিটিকে সাড়ে ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেয় এবং প্রায় ত্রিশ লাখ টাকা মূল্যের অবৈধ ওষুধ ধ্বংস করে।

জানা যায়, টেকনো ড্রাগস লিমিটেড কারখানাটি মৎস্য ও পশুখাদ্যের প্রিমিক্স হিসেবে নিবন্ধিত ছিলো যা ২০১৭ সালে মেয়াদোত্তীর্ণ হয় এবং কারখানায় নোংরা পরিবেশে শ্রমিকদের দ্বারা এসব প্রিমিক্স তৈরি করছিল।  কারখানার দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায় টেকনো ড্রাগস লিমিটেড অবৈধভাবে বিভিন্ন ধরনের ইনজেকটাবোল এন্টিবায়োটিক, স্টেরয়েড ড্রাগ, ভারমিক ইনজেকশন , কিটোভেট ইনজেকশন , টোলফা ভেটেরিনারি ইনজেকশন , বিভিন্ন ধরনের হরমোনাল ড্রাগস,এমনকি জন্মনিরোধক পিল নরজেস্ট উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাত করতো। অথচ টেকনো ড্রাগস লিমিটেড উপরিউক্ত মেডিসিন উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাতের জন্য ঔষধ বিভাগ থেকে কোন নিবন্ধন করেনি।

ফলে এসব অপরাধ আমলে নিয়ে টেকনো ড্রাগস লিমিটেডকে ড্রাগ এ্যাক্ট ১৯৪০ অনুযায়ী দশ লাখ (১০,০০০০০) টাকা এবং মৎস্যখাদ্য ও পশুখাদ্য আইন ২০১০ অনুযায়ী পঞ্চাশ হাজার (৫০,০০০) টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রইছ আল-রেজুয়ান। এছাড়াও কারখানা হতে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মালামাল জব্দ করা হয় এবং ঘটনাস্থলেই ধ্বংস করা হয়।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিবপুর এবং সহকারী কমিশনার ভূমি শিবপুর সার্বিক কার্যক্রমে সহায়তা করেন।এছাড়াও ভেটেরিনারি সার্জন নরসিংদী সদর, ড্রাগ সুপার নরসিংদী, বাংলাদেশ পুলিশ ও বাংলাদেশ আনসার মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহায়তা করেন।

This post has already been read 3169 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN