৪ মাঘ ১৪২৭, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ৫ জমাদিউস-সানি ১৪৪২
শিরোনাম :

কৃষিতে আমরা বিপ্লব আনতে চাই – শ ম রেজাউল করিম

Published at নভেম্বর ২৫, ২০২০

পিরোজপুর :  “আমরা কৃষিতে বিপ্লব আনতে চাই। কোথাও এক শতাংশ জমি ফাঁকা থাকবে না। প্রতি ইঞ্চি জমিকে আমরা কাজে লাগাতে চাই যাতে কোথাও পরিত্যক্ত জমি না থাকে। সেজন্য সরকার কাজ করছে।”

বুধবার (২৫ নভেম্বর) পিরোজপুরের নাজিরপুরে রবি শস্য চাষিদের প্রণোদনা প্রদান ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের মাঝে কৃষি উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি এসব কথা বলেন।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, “সরকার এখন বিনামূল্যে কৃষি সরঞ্জাম, সার-কীটনাশক ও বীজ দিচ্ছে। এমনকি কৃষকদের দশ টাকার হিসাব খুলে বিনা জামানতে ঋণ দেয়া হচ্ছে। কারণ এ দেশ কৃষিনির্ভর দেশ। কৃষি বাঁচলে বাংলাদেশ বাঁচবে। আর কৃষিকে বাঁচাতে হলে কৃষককে বাঁচাতে হবে। সেজন্য কৃষকের সকল চাহিদা পূরণ করছে শেখ হাসিনা সরকার। কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণের মাধ্যমে কৃষিব্যবস্থাকে সরকার আধুনিক করছে। একই মেশিনে চাষাবাদ, ধান কাটা ও ধান মাড়াই হবে। এ মেশিন ইতোমধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।”

নাজিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওবায়দুর রহমানের সভাপতিত্বে  নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অমূল্য রঞ্জন হালদার অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। নাজিরপুর উপজেলায় কর্মরত বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ, স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মন্ত্রী পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে নাজিরপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ৪২তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ, বিজ্ঞান মেলা ও ৫ম জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড ২০২০ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন- “বাংলাদেশকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর করার জন্য বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা অবিরাম চেষ্টা করছেন। ডিজিটাল ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথিবীটা হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছেন। শেখ হাসিনা চান বিজ্ঞানের নতুন নতুন আবিষ্কার দিয়ে সারাপৃথিবীর সাথে বাংলাদেশও এগিয়ে যাবে। এজন্য কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক করার জন্য বিজ্ঞান সপ্তাহসহ অন্যান্য আয়োজনকে সরকার গুরুত্ব দিয়েছে। আধুনিক, বিজ্ঞানমনস্ক ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষার ক্ষেত্রে শেখ হাসিনার অবদান কল্পনাতীত।”

এ সময় তিনি আরো বলেন “শিক্ষার্থীদের আদর্শ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। নৈতিকতা ও মূল্যবোধের শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। শুধুমাত্র পুঁথিগত শিক্ষায় শিক্ষিত করলে তারা আদর্শ মানুষ হতে পারবে না। এমএ-বিএ পাশ করার মাধ্যমে আদর্শ মানুষ হওয়া যায়না, যদি সে সত্যিকারের আদর্শ শিক্ষা, নৈতিকতা ও মূল্যবোধের শিক্ষা নিতে না পারে।”

‍শিক্ষকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, “শিক্ষার্থীরা মেধা, বিচক্ষণতা, বুদ্ধিমত্তা এবং জ্ঞানকে যেনো সম্পদ মনে করে। সকলের জন্য জীবনকে বিকশিত করা তাদের শেখাতে হবে। তাহলে সে শিক্ষা আমাদের কাজে আসবে। যে শিক্ষা ব্যক্তিকেন্দ্রিকতা শেখায়, যে শিক্ষা একা ভালো থাকা শেখায় সে শিক্ষা আদর্শ শিক্ষা নয়। আমাদের সন্তানরা মানুষ না হলে আমাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। কারণ ওরাই আগামী দিনে দেশের নেতৃত্ব দেবে।”

পরে পিরোজপুর খেয়াঘাট-হুলারহাট সড়কের পল্লী বিদ্যুৎ সংলগ্ন খালে কালভার্ট নির্মাণ কাজ এবং মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের নিবন্ধিত স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সমিতিসমূহের মধ্যে অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন মন্ত্রী। পরে জাতির ‍পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল উদ্বোধন করেন তিনি।

This post has already been read 256 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN