৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ২১ রবিউল-আউয়াল ১৪৪১
শিরোনাম :

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জৈব কৃষি ও জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা প্রদর্শনীর মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

Published at নভেম্বর ১, ২০১৯

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা: কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে এবং খরিফ-২/২০১৯ -২০২০ মৌসুমে পরিবেশ বান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকল্পের আওতায় জৈব কৃষি ও জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা সবজি (ফুল কপি) ফসল চাষাবাদ বিষয়ে প্রদর্শনীর এক মাঠ দিবস গরুড়া কলেজ বাজারে গত ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়।

জৈব কৃষি ও জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন করাই ছিল মূলত এ মাঠ দিবসের প্রধান উদ্দেশ্য। দৌলতপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এ কে এম কামরুজ্জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষ্টিয়াস্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের জেলা প্রশিক্ষন অফিসার কৃষিবিদ সুশান্ত কুমার প্রামানিক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৌলতপুর উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ মো: সজিব আল মারুফ এবং কৃষি তথ্য সার্ভিস আঞ্চলিক অফিস পাবনার কর্মকর্তাবৃন্দ।

অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্যে কৃষিবিদ মো. সজিব আল মারুফ পরিবেশ বান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদন প্রকল্পের উদেশ্য এবং জৈব কৃষি ও জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা (ফুল কপি) সবজি উৎপাদন,পরিচর্যা ইত্যাদি চাষাবাদ বিষয়ক কলাকৌশল তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথীর বক্তব্যে কৃষিবিদ সুশান্ত কুমার প্রামানিক বলেন, আমাদের দেশ বর্তমান খাদ্যে স্বয়ংসর্ম্পূন, এর ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখতে হবে। কৃষক-কৃষানী না বুঝে ফসলের ক্ষতে অধিক পরিমানে রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহারের ফলে নিরাপদ ফসল উৎপাদন সম্ভব হচ্ছেনা। তিনি পরিবেশবান্ধব কৌশলের মাধ্যমে নিরাপদ ফসল উৎপাদনে জৈব কৃষি ও জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা বিষয়ে মাঠ দিবসে অংশগ্রহনকরী কৃষক-কৃষানীদের ফসল উৎপাদনের আহবান জানান।

সভাপতির বক্তব্যে কৃষিবিদ এ কে এম কামরুজ্জামান বলেন, জৈব কৃষি ও জৈব বালাই ব্যবস্থাপনা ফসল উৎপাদনে করলে একদিকে পরিবেশ দুষিত হবে না, অপরদিকে মানবদেহের রোগবালাই রক্ষা পাওয়া যাবে। প্রদর্শনীর মাধ্যমে ফুল কপি ও অন্যান্য সবজি উৎপাদন বৃদ্ধিতে করনীয় বিষয়ে কৃষক-কৃষানিদের উপজেলা কৃষি অফিস সার্বিক সহযোগীতা করা হয়েছে। অন্যদের মধ্যে কৃষক প্রতিনিধি, সংশ্লিষ্ট উপসহকারী কৃষি কর্মকতা বক্তব্য রাখেন। মাঠ দিবসে আশপাশের গ্রামের কয়েকশত কৃষক কৃষাণি উপস্থিত ছিলেন।

This post has already been read 153 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN