২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৬ জুন ২০২০, ১৫ শাওয়াল ১৪৪১
শিরোনাম :

করোনা যুদ্ধে এমএএস এডিটিভস্ ট্রেডিংয়ের ৫ শতাধিক পিপিই বিতরণ

Published at মার্চ ৩১, ২০২০

এগ্রিনিউজ২৪.কম ডেস্ক: মানুষ মানুষের জন্য। বিপদেই মানুষের পরিচয়। বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সারা পৃথিবীর মতো বাংলাদেশের জন্যও বিপদ ও আতঙ্ক হয়ে দেখা দিয়েছে। সাধারণ মানুষকে যারা স্বাস্থ্য সেবা দিবেন সেসব স্বাস্থ্যকর্মীরাও এ বিপদের বাইরে নন। যারা সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা দিবেন তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য এগিয়ে এসেছেন দেশের পোলট্রি, মৎস্য ও প্রাণি স্বাস্থ্যসেবা খাতে সুপরিচিত কোম্পানি এম.এ.এস এডিটিভস ট্রেডিং।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে সোমবার (৩০ মার্চ) ঝিনাইদহের ৬টি উপজেলার ৬টি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক, নার্স, প্রশাসন কর্মকর্তা ও জন প্রতিনিধির কাছে ৫ শতাধিক পিপিই (ব্যাক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম) বিতরন করা হয়। ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ, পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কনক কান্তি দাস ও পৌর মেয়র সাইদুল করিম মিন্টুর হাতে এসব পিপিই তুলে দেন এম.এ.এস এডিটিভস ট্রেডিং –এর প্রধান নির্বাহী ডা. রিয়াজুল ইসলাম।

এ সময় ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারসহ ৬টি উপজেলার স্বাস্থ্য কর্মকতা, এম.এ.এস এডিটিভস ট্রেডিং –এর বিজনেস ম্যানেজার হামিদুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

এ সম্পর্কে এম.এ.এস এডিটিভস ট্রেডিংয়ের প্রধান নির্বাহী ডা. রিয়াজুল ইসলাম বলেন, ঝিনাইদহ জেলায় অনেকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। চিকিৎসক ও নার্সরা যখন নিজেদের সুরক্ষা করে সেবা দিতে সমস্যা হচ্ছে তখনই আমরা তাদের পাশে দাড়িয়েছি।

ডা. রিয়াজুল ইসলাম বলেন, চিকিৎসক, নার্স, পুলিশ এবং প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ যারা মাঠ পর্যায়ে সরাসরি কাজ করেন, তাঁরা যেন সাধারণ মানুষকে ঝুঁকিমুক্তভাবে সেবা দিতে পারেন এবং নিজেরা সুরক্ষিত থাকতে পারেন সেজন্য আমরা এসব সামগ্রী বিতরণ করেছি।

তিনি আরো বলেন, আমাদের বিতরণকৃত পিপিইগুলো অটোক্লেভ এবং পুনঃবার ব্যবহার করা যাবে। আমরা আশা করি, করোনা যুদ্ধে যারা ফ্রন্টলাইনে কাজ করছেন তাঁরা বিজয়ী হবেন।

উল্লেখ্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল, মহেশপুর, কালীগঞ্জ, কোটচাদপুর, শৈলকুপা ও হরিনাকুন্ডু উপজেলায় পিপিই বিতরণ করা হয়।

This post has already been read 527 times!

Fixing WordPress Problems developed by BN WEB DESIGN